দূষণের দায়ে শাকিব খানের টিনের বেড়া গুঁড়িয়ে দিল ডিএনসিসি

0

বিনোদন ডেস্ক:

জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খানের ভবন নির্মাণের জন্য রাখা ইট-বালু এবং অন্যান্য নির্মাণ সামগ্রী গুঁড়িয়ে দিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)।

তিনি এগুলো অ-ব্যবস্থাপনায় রেখে বায়ুদূষণের সৃষ্টি করছিলেন। এছাড়া অভিযানে তার ভবনটিকে ঘিরে রাখা টিনের বেড়াও গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর নিকেতনে বায়ুদূষণকারীদের বিরু’দ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদলতের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করে (ডিএনসিসি)। এতে নেতৃত্ব দেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম।

নিকেতন এলাকার ২ নম্বর গেট সংলগ্ন ৮ নম্বর রোড থেকে অভিযানটি শুরু করা হয়। এলাকাটিতে নির্মাণাধীন ভবণের সামনে ইট, বালু, পাথরসহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী রাখার কারণে পরিবেশ-বায়ু দূষণ হচ্ছে- এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযানে নামে ডিএনসিসি।

অভিযান পরিচালনা করেন ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট এবং অঞ্চল-৩ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা মীর নাহীদ হাসান।

শাকিব খানকে ১০ লাখ টাকা জরি’মানা করল ভ্রাম্যমাণ আদালত

ঢাকাই ছবির নায়ক শাকিব খানকে ১০ লাখ টাকা জরি’মানা করেছেন রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রাজউকের নকশা না মেনে অ’বৈধভাবে বর্ধিত অংশ নির্মাণ করা হয়েছে শাকিব খানের গুলশান নিকেতনের বাড়িটির। এমন অভিযোগে শাকিব খানকে এ জরি’মানা করেন রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফ হোসেন।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) রাজউকের এ ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালিত হয়।

রাজউকের অভিযানকালে ওই বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন শাকিব খানের ভগ্নিপতি ও বাড়িটির কেয়ারটেকার।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে বাড়িটির কাগজপত্র দেখতে এলে সেখানে অ’সংলগ্নতা ধরা পড়ে। ঘটনাস্থলেই শাকিব খানকে ১০ লাখ টাকা জরি’মানা করেন (অ’নাদায়ে ১ বছরের জেল) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শাকিব খানকে জরি’মানার তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন রাজউকের জোন (৪) অথরাইজ অফিসার মোহাম্মদ হোসেন।

সকাল থেকে নিকেতন এলাকায় রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালাচ্ছেন। জরি’মানা করেন, রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফ হোসেন। শাকিব খানের ভগ্নিপতি ও কেয়ারটেকার কাগজপত্র দেখাতে আসলে বাড়ির নকশা সংক্রান্ত অ’সংগতি ধরা পড়ে।

রাজউকের জোন (৪) অথরাইজড অফিসার মোহাম্মদ হোসেন বলেন, সকাল থেকে নিকেতন এলাকায় রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালাচ্ছে। অভিযানের সময় শাকিব খান ওরফে রানা’র বাড়িটি নকশা না মেনে নির্মাণ করা হয়েছে বলে দেখা গেছে। এ কারণে ১০ লাখ টাকা জরি’মানা করা হয়। রাজউকের তদন্তে দেখা যায়, ওই বাড়ির ছাদটি নকশা মেনে করা হয়নি।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!