‘মেইদ’ মাছ বেচে ২৪ ঘণ্টায় ৬ লাখ টাকার মালিক মঞ্জু!

0

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:

সুন্দরবনে নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে ভাগ্য খুলেছে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার হরিনগর গ্রামের মঞ্জু গাজীর। তার জালে আটকা পড়েছে ১২১টি ‘মেইদ’ মাছ। মঞ্জু সেই মাছ বিক্রি করে একদিনেই পেয়েছেন প্রায় ৬ লাখ টাকা।

রোববার বিকালে তার দু’টি জালের ১টিতে ধরা পড়ে এই মাছ। স্থানীয়ভাবে পরিচিত ‘মেইদ’ মাছ সুন্দরবনের নদীতে সবচেয়ে মূল্যবান প্রজাতির মাছের একটি।

খানিকটা কাইন মাছের আকৃতির এই মাছ অত্যন্ত সুস্বাদু। সচরাচর জালে এ মাছ ধরা পড়ে না। বড়শি দিয়েই ধরতে হয় এ মাছ।

মঞ্জু গাজী জানান, বন বিভাগের অনুমতি নিয়ে দিন দু’য়েক আগে বনের মালঞ্চ নদীতে হোয়াইট ফিশ (মিঠা পানির মাছ) ধরার লক্ষ্যে দুটি জাল ফেলেন। রোববার বিকালে তার ১টি জাল পানিতে নিখোঁজ হয়ে যায়। আর একটি তুলে তিনি দেখতে পান তার মধ্যে আটকা পড়েছে ‘মেইদ’ মাছ।

অপেক্ষা না করেই তিনি দ্রুত চলে আসেন উপকূলে। শ্যামনগরের মুন্সীগঞ্জ ইউনিয়নের হরিনগর বাজারে পাইকারি ক্রেতাদের কাছে তিনি ১২১টি ‘মেইদ’ মাছ বিক্রি করে হাতে পান ৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা।

তিনি বলেন, এ যেন আকাশের চাঁদ হাতে পাওয়া।

মঞ্জু গাজী জানান, মেইদ মাছ দলবদ্ধ হয়ে চলাফেরা করে। তার ধারণা, একটি বড় দল তার অন্য জালে আটকে গিয়ে গায়ের জোরে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। ২য় জালটিতে আটকা পড়া ১২১টি মাছ তার ভাগ্য খুলে দিয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

মেঘনায় ধরা পড়ল ৫ মণ ওজনের শাপলা পাতা মাছ

কিশোরগঞ্জের ভৈরবের মেঘনায় জেলেদের জালে ৫ মণ ওজনের একটি বিশাল আকৃতির শাপলা পাতা মাছ ধরা পড়েছে। আজ বিকালে পৌর শহরের পলতাকান্দা গ্রামের জেলে আলমগীর হোসেনের জালে মাছটি ধরা পড়ে।

জেলেদের দাবি, শাপলা পাতা মাছটি ১ লাখ টাকায় বিক্রি করতে পারবেন তারা। বিশাল আকারের মাছটি সন্ধ্যায় নৈশ মৎস্য আড়তের মনির এন্টারপ্রাইজের মালিক রাজু বেপারী কাছে নিয়ে আসেন তারা। মাছ দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় জমায়।

সন্ধ্যা পর্যন্ত আড়তে ক্রেতারা মাছটির দাম ৬৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বলেছে।

পৌর শহরের পলতাকান্দা গ্রামের বাসিন্দা আলমগীর হোসেন জানান, দীর্ঘ দিন ধরে মেঘনা নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করছেন তিনি। প্রতিদিনের মত আজও দুপুরে নদীতে জাল ফেলেন তিনিসহ তার সহযোগীরা।

পরে মাছ ধরতে জাল টেনে কাছে আনার সময় জালে বড় কিছু একটা ধরা পড়েছে বলে টের পান তারা। ফলে আস্তে আস্তে জাল টেনে কৌশলে বিরল প্রজাতির শাপলা পাতা মাছটি ধরতে সক্ষম হন। মাছটি লাখ টাকা বিক্রি করবে এই প্রত্যাশা তাদের।

শেয়ার করুন !
  • 321
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply