৪ লাখ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াবে ডিএসসিসি

0

সময় এখন ডেস্ক:

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় শনিবার (১১ জানুয়ারি) প্রায় ৪ লাখ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে রোববার মেয়র মোহাম্মদ হানিফ অডিটোরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলন জাতীয় পুষ্টি সেবার লাইন ডিরেক্টর ডা. এসএম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শনিবার (১১ জানুয়ারি) ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৫৫ হাজার ৯৫৫ জন শিশুকে ১টি করে নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৩ লাখ ৪৮ হাজার ৭০৪ হাজার শিশুকে ১টি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ওই দিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এক হাজার ৪৮৭টি কেন্দ্রের মাধ্যমে এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

তিনি বলেন, ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ালে রাতকানা রোগ হয় না। এছাড়া শিশুদের রোগ প্রতিরো’ধ ক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি প্রতিব’ন্ধী হওয়া থেকে রক্ষা করে। তাই শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াতে নিকটস্থ কেন্দ্রে নিয়ে আসতে অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ জানাই।

ডিএসসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রি. জে. ডা. শরীফ আহমেদের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী শাহ মো. ইমদাদুল হক।

ঢাকার দুই সিটিতে ত্রাণ বিতরণে নিষে’ধাজ্ঞা জারি

ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনী এলাকায় নতুন সব ধরনের অনুদান ও ত্রাণ বিতরণের ওপর নিষে’ধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই নিষে’ধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

শনিবার (৪ জানুয়ারি) ইসির নির্বাচন পরিচালনা-২ অধিশাখার উপসচিব আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এ নির্দেশনা সংক্রান্ত চিঠি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের জন্য গত ২২ ডিসেম্বর ঘােষিত তফসিল অনুসারে আগামী ৩০ জানুয়ারি ভােটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সিটি কর্পোরেশন (নির্বাচন আচরণ) বিধিমালা, ২০১৬ (সংলগ্নী-২) এর বিধি ৪ অনুযায়ী নির্বাচন-পূর্ব সময় অর্থাৎ নির্বাচনী তফসিল ঘােষণার তারিখ থেকে নির্বাচনের ফলাফল সরকারি গেজেটে প্রকাশের তারিখ পর্যন্ত কোনো প্রার্থী বা প্রতিদ্ব’ন্দ্বী প্রার্থী বা তার পক্ষে কোনো রাজনৈতিক দল, অন্য কোনো ব্যক্তি, সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট এলাকায় অবস্থিত কোনো প্রতিষ্ঠানে প্রকাশ্যে বা গােপনে কোনো প্রকার চাঁদা বা অনুদান প্রদান করতে বা অঙ্গীকার করতে পারবেন না। এ বিধিমালার বিধান ল’ঙ্ঘন দ’ণ্ডনীয় অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে এবং এ ধরনের অপরাধের জন্য সংশ্লিষ্টরা উল্লিখিত আচরণ বিধিমালার বিধি ৩১ অনুযায়ী দ’ণ্ডনীয় হবেন।

চিঠিতে আরও বলা হয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে প্রভাবমুক্ত রাখার লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে যে, নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে নতুন ভিজিডি কার্ড ইস্যু কার্যক্রমসহ নতুন কোনো প্রকার অনুদান/ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম গ্রহণ করা যাবে না।

তবে যে সকল ত্রাণ কার্যক্রম আগে থেকে পরিচালিত হচ্ছে অর্থাৎ চলমান ত্রাণ কার্যক্রম চালু থাকবে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

চিঠিতে বলা হয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের কার্যক্রম সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় নতুন ভিজিডি কার্ড ইস্যুসহ নতুন কোনো প্রকার অনুদান/ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম স্থ’গিত রাখার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

কোনো এলাকায় অনুদান ত্রাণ বিতরণ সংক্রান্ত নতুন কার্যক্রম গ্রহণ আবশ্যক হলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নির্বাচন কমিশনের সম্মতি গ্রহণ করতে হবে।

শেয়ার করুন !
  • 101
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!