ইশরাখ ঢাকাকে দষূণমুক্ত করতে শিখেছে বাপ-চাচাদের কাছে: আব্বাস

0

সময় এখন ডেস্ক:

ঢাকা দক্ষিণে মেয়র প্রার্থী হিসেবে ইশরাক হোসেনকে উপযুক্ত দাবি করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, ঢাকা শহরকে কীভাবে দূষণমুক্ত করতে হয় তা বাপ-চাচাদের কাছ থেকে শিক্ষা নিয়েছে ইশরাক। সে একজন ইঞ্জিনিয়ার।

রবিবার দুপুরে ঢাকা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের (জজ কোর্ট) সামনে থেকে গণসংযোগ শুরুর আগে তিনি এসব কথা বলেন। ইশরাকের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান মির্জা আব্বাস।

প্রচারণা শুরুর আগেই সেখানে অসংখ্য বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। তারা ‘ধানের শীষে ভোট দিন’ শ্লোগান দেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, ঢাকা মহানগরী আজকে ডাস্টবিনে পরিণত হয়েছে বিগত ১৩ বছরের সরকারের সময়। এই মহানগরীতে আমি এক সময় মেয়র ছিলাম। এর আগে কিন্তু ঢাকা শহর ডাস্টবিনে পরিণত ছিল না। সবুজ নগরী ছিল, আজকে রুক্ষ হয়ে গেছে। অতঃপর মেয়র ছিলেন সাদেক হোসেন খোকা, সে সময়েও এরকম দূষণ ছিল না। না। বায়ুদূষণ, জলদূষণ, সমস্ত দিকে দূষণ আর দূষণ।

আব্বাস বলেন, ইশরাক একজন ইঞ্জিনিয়ার, সে ঢাকা নগরীর ছেলে, তার এখানে জন্ম। এই শহরের অলি-গলি তার জানা আছে। এই দূষণ থেকে শহরকে রক্ষা করার জন্য, নগরবাসীদের স্বাচ্ছন্দ্য দিতে সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন এপ্রোপিয়েট ক্যান্ডিডেট।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন গণসংযোগ উদ্বোধন করে বলেন, বিএনপি মনোনীত, একজন যোগ্য, দক্ষ, তরুণ ও আধুনিক প্রার্থী ইশরাক হোসেন। সাদেক হোসেন খোকার যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে তাকে মনোনীত করেছি।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, আজকে ঢাকা শহরের চিত্র দেখেন, যানজটে মানুষ টিকতে পারে না। পৃথিবীর মধ্যে ঢাকা শহর বায়ুদূষণের নগরী হিসেবে পরিচিত হয়েছে। এই নগরী বসবাসের অনুপযোগী হিসেবে বিশ্বে চিহ্নিত হয়েছে। আমরা এই মহানগরীকে দূষণ ও যানজটমুক্ত করতে চাই। আধুনিক ও বসবাস উপযোগী ঢাকা শহরে পরিণত করতে চাই। সেই উদ্দেশ্য নিয়ে ইশরাক হোসেনের মতো শিক্ষিত একজনকে মনোনয়ন দিয়েছি আমরা।

মোশাররফ বলেন, সারা দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়। দেশের মানুষের জীবন আজ বি’পন্ন। সারা দেশের মতো ঢাকা শহরের মানুষও পরিবর্তন চায়। আপনারা ধানের শীষে ভোট দিয়ে ইশরাক হোসেনকে জয়যুক্ত করবেন।

এ সময় তিনি বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিল প্রার্থীদের জন্যও ভোট চান।

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, বিএনপি দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবীর খোকন, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাসার প্রমুখ এই প্রচারণায় অংশ নেন।

শেয়ার করুন !
  • 220
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply