অবশেষে আজহারীর মাহফিলে ধর্মা’ন্তরের নাটক করা সেই ১১ জন আটক

0

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুর হাফেজ আয়াত উল্যার বাড়ি থেকে মিজানুর রহমান আজহারীর মাহফিলে হিন্দু পরিচয়ে কালেমা পাঠ করে ধর্মা’ন্তর হওয়া এক পরিবারের ১১ জনকে আটক করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে তাদের আটক করা হয়।

জানা যায়, আটককৃতরা এর আগে ভারতীয় নাগরিকত্ব গোপন রেখে বাংলাদেশি মুসলমান হিসেবে নিবন্ধন করে রামগঞ্জে বসবাস করছিলেন। এরপরেও পুনরায় কালেমা পাঠ করিয়ে তাদের মুসলমান বানায় মিজানুর রহমান আজহারীর অনুসারীরা। বিষয়টি নিয়ে উপজেলাব্যাপী সকল ধর্মালম্বীদের মাঝে ক্ষো’ভ বিরাজ করছে।

সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য নারায়ণপুর ডাক্তারবাড়ির মোসাম্মৎ ফাতেমা বেগম ও আবদুল মজিদের ছেলে মনির হোসেন (৩৯) ২০ বছর পূর্বে অ’বৈধভাবে ভারতে চলে যায়। সেখানে গিয়ে শংকর নাম ধারণ করে ভারতীয় নাগরিকত্ব গ্রহণ করে। সেখানে একটি বাসা ভাড়া করে বসবাস শুরু করেন। কয়েক মাস যেতে না যেতেই ভাড়া বাসার মালিকের মেয়ে রেখা অধিকারীকে বিয়ে করে। পরে রেখার জেঠতুতো বোন সুজাতা অধিকারীকেও বিয়ে করে শংকর ওরফে মনির হোসেন।

দুই সংসারে মিতালী, শেফালি, রুপালি, কোয়েল, শ্যামলি, রাজা, সুমা, রাজেশ নামে ৮ সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি কয়েকমাস আগে সবাইকে নিয়ে বাংলাদেশে এসে নিজের পুরনো নাম মনির হোসেন দিয়ে (১৯ অক্টোবর ২০১৯) রামগঞ্জ উপলোর ইছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জম্ম নিবন্ধন করেন। এরপর গত ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ সালে ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার শুভাঢ্যা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মুসলমান হিসেবে ২ স্ত্রী ও সন্তানদের জম্ম নিবন্ধন করেন।

এর আগে বড় মেয়ে শেফালি বেগমকে উপজেলার চন্ডিপুরে তার বড় বোন পারভিন বেগমের ছেলে পারভেজ হোসেনের সাথে বিয়ে দেয়। সেখানে আব্দুর রহমান নামে এক নাতি রয়েছে। মাহফিলে এই মুসলিম পরিবারের ১১ জনকে কালেমা পাঠ করিয়ে পুনরায় মুসলমান বানানোর নাটক করানো হয়। যার নেপথ্যে রয়েছে স্থানীয় জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা। তারা মিজানুর রহমান আজহারীর জনপ্রিয়তা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে এ কাজটি করে বলে জানান জনগণ। বিষয়টি নিয়ে উপজেলাব্যাপী মিশ্র প্র’তিক্রিয়া দেখা দিলে শনিবার রাতে তাদের আটক করা হয়।

এলাকাবাসী জানান, মনির হোসেন মুসলমান ছিল। সে ছোটবেলায় ভারতে চলে যায়। গত কয়েক মাস আগে সে পরিবারের সবাইকে নিয়ে দেশে এসে মুসলমান হিসেবে নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন। তার ২ মেয়ে জান্নাত আক্তার ও আয়েশা আক্তার হরিশ্চর মাদ্রাসায় ৫ম শ্রেণিতে এবং ছেলে আব্দুল্লাহ নামে হরিশ্চর নুরানী মাদ্রাসায় অধ্যয়নরত। জামায়াতপন্থী একটি চক্র তাদের লোভ দেখিয়ে শুক্রবার মিজানুর রহমান আজহারীর মাহফিলে নিয়ে পুনরায় কালেমা পড়িয়ে ধর্মা’ন্তর করেন।

রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, ধর্মা’ন্তর হওয়া ১১ জনের কাছে ভারতীয় পাসপোর্ট আছে। তারা নাগরিকত্ব গোপন করেছে। তাই তাদেরকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। বিষয়টি রাষ্ট্রিয়, আমাদের হাইকমান্ড বিষয়টি দেখছে।

শেয়ার করুন !
  • 27.3K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!