তাবিথ জিতলে তার সাথে আমার ৯ মাসের অভিজ্ঞতা শেয়ার করব: আতিকুল

0

সময় এখন ডেস্ক:

সিটি নির্বাচনের ফলাফল যাই হোক তা মেনে নেবেন এবং নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করবেন বলে জানিয়েছে ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম।

শনিবার সকাল ৮টার কিছু পর উত্তরা মডেল টাউনের নওয়াব হাবিবুল্লাহ স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভোট দেওয়ার পর সাংবাদিকদের সামনে তিনি এই কথা বলেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনে হারজিত থাকবে। ফল যাই হোক মেনে নেব। যদি আমার প্রতি-পক্ষ তাবিথ আউয়ালের দল জয়লাভ করে তাহলে আমি তাদের সঙ্গে আমার ৯ মাসের অভিজ্ঞতা শেয়ার করব।

জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করে নৌকা প্রতীকের মেয়রপ্রার্থী বলেন, এখন ফেব্রুয়ারি মাস। শুরুতেই আমি স্মরণ করছি ভাষাসৈনিকদের। আলহামদুলিল্লাহ। আমার ইচ্ছা ছিল প্রথম ভোটটা দেয়ার। সেটা দিতে পেরেছি। বাসা থেকে হেঁটে কেন্দ্রে এসেছি। পরিবেশ সুন্দর আছে। ইভিএমে ভোট দিয়েছি। পদ্ধতিটা ভালো লেগেছে। কোনো কালি লাগেনি।

ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী আরও বলেন, আমি বিজিএমইএ’র প্রেসিডেন্ট ছিলাম। সেখানে অনেকবার নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। নির্বাচনে হারজিত আছে। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। জয় আমাদের হবে ইনশাল্লাহ। নৌকা দিয়েছে উন্নয়ন, ভবিষ্যতেও দেবে।

আতিকুল বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মার্কা হলো নৌকা। যে নৌকা আমাদের দিয়েছে স্বাধীনতা। লাল-সবুজের পতাকা। এই নৌকা প্রতীক নিয়ে আমি ইলেকশন করছি। জনগণ ইনশাল্লাহ নৌকায় ভোট দেবে। বিজয়ী হলে চেষ্টা করব সুন্দর, আধুনিক ঢাকা উপহার দেয়ার জন্য।

আমার ভোটটা তাপসকেই দিলাম: প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপসকে ভোট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

ভোট দিতে শনিবার সকাল আটটায় সিটি কলেজ কেন্দ্রে যান সরকারপ্রধান। এরপর সাংবাদিকদের সামনে কথা বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকা সিটিতে আমাদের দুইজন প্রাথী। আমি অবশ্য ভোটার হচ্ছি ফজলে নূর তাপসের। তাপসকে আমি ভোট দিলাম। আর উত্তরে আতিক আমাদের প্রার্থী। আমি আশা করি সেও জয়যুক্ত হবে।

এর আগে সকাল ৮টায় ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর পদে নির্বাচন শুরু হয়। ভোট চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে এ ভোটগ্রহণ হচ্ছে।

ঢাকার এই দুই সিটিতে ৫৪ লাখ ৬৩ হাজার ৪৬৭ জন ভোটার রয়েছেন। দুই সিটিতে মোট ১৬টি ভেন্যু থেকে ২ হাজার ৪৬৮টি কেন্দ্রে একযোগে এ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে ৬ জন, সাধারণ কাউন্সিলরের ৫৪টি পদে ২৫১ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর ১৮টি পদে ৭৭ জন ল’ড়াই করছেন। অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণে মেয়র পদে ৭ জন, সাধারণ কাউন্সিলরের ৭৫টি পদে ৩২৬ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরের ২৫টি পদে ৮২ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব’ন্দ্বিতা করছেন।

শেয়ার করুন !
  • 559
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply