৩ ইভটিজার কিশোরকে তাবলিগে পাঠালেন এসিল্যান্ড!

0

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে উত্ত্য’ক্তের অভিযোগে আটক ৩ কিশোরকে তাবলিগ জামাতে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক মির্জাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (এসিল্যান্ড) মো. মঈনুল হক ভালো হওয়ার সুযোগ দিয়ে তাদের ৬ দিনের তাবলিগে পাঠান।

এরা হচ্ছে- উপজেলা সদরের পোষ্টকামুরী পূর্বপাড়া (সওদাগরপাড়া) গ্রামের শুভ মিয়া, আশিক ও জিহাদ। ভিক্টিম ওই শিক্ষার্থী মির্জাপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এই ৩ কিশোর এসএসসি পরীক্ষার্থী ওই ছাত্রীকে স্কুলে যাওয়া আসার পথে নানাভাবে উত্ত্য’ক্ত করতো। ওই ছাত্রী মির্জাপুর সরকারি কলেজ কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। গত সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে যাওয়ার সময় তারা মেয়েটির গতিরো’ধ করে। এ সময় সে চিৎকার করলে তারা পালিয়ে যায়।

পরে এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পরীক্ষা কেন্দ্রের সামনে ওই ৩ কিশোর ফের মেয়েটিকে উত্ত্য’ক্ত করতে আসলে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা মির্জাপুর থানা পুলিশ তাদের আটক করে।

বুধবার দুপুরে আটক ওই ৩ কিশোরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারী কমিশনার (এসিল্যান্ড) মো. মঈনুল হকের কার্যালয়ে হাজির করা হলে বিচারক তাদেরকে সাজা না দিয়ে ভালো হওয়ার সুযোগ দিতে ৬ দিনের তাবলিগ জামাতে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

এসিল্যান্ড মো. মঈনুল হক বলেন, ৩ কিশোরই শিক্ষার্থী। তাই তাদের শিক্ষাজীবন সুরক্ষার জন্য সাজা না দিয়ে তাবলিগে পাঠানো হয়েছে।

৮ বছর আমেরিকায় বসে দেশ থেকে বেতন-ভাতা উত্তোলন!

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তিনি। বিভিন্ন ছুটি দেখিয়ে দীর্ঘ ৮ বছর ধর বসবাস করছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। তবু নিয়মিত বেতন ভাতাসহ সরকারি সকল সুবিধা ভোগ করে চলেছেন দেশ থেকে।

বুধবার, ৫ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অভিযানে ময়মনসিংহের গফরগাঁও আঠারদানা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরু’দ্ধে এমন তথ্যের সত্যতা পাওয়া গেছে।

গত ৮ বছর ধরে শিক্ষা ছুটিতে থেকেও নিয়ম বহির্ভূতভাবে বেতন ভাতা উত্তোলনসহ সরকারি সকল সুবিধা ভোগ করেছেন- এমন অভিযোগে দুদকের ময়মনসিংহ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রাম প্রসাদ মণ্ডলের নেতৃত্বে একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে।

দুদক জানায়, সরেজমিনে অভিযানে অভিযোগের সত্যতা পায় দুদক টিম। নথিপত্র যাচাই এবং বিশ্লেষণ করে টিম জানতে পারে, উল্লিখিত শিক্ষক স্বাস্থ্য ছুটি দেখিয়ে ৩ দফায় মোট ৮ বছর ধরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন। একইসাথে বিদ্যালয়ে পাঠদান না করেই বেতন ভাতা উত্তোলন করে আসছেন।

সার্বিক পর্যালোচনায় উল্লিখিত শিক্ষক চরম দায়িত্বে অব’হেলা ও বে’আইনিভাবে সরকারি সম্পদের আত্ম’সাৎ করেছেন বলে দুদক টিমের নিকট প্রতীয়মান হয়। এ অ’নিয়মের বিষয়ে বিস্তারিত অনুসন্ধানের সুপারিশ করে কমিশনে প্রতিবেদন উপস্থাপন করবে দুদক টিম।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!