ট্রাকে তুলে নিয়ে ৪ জন মিলে কিশোরীকে ধ-র্ষণ

0

গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুরের টঙ্গীতে বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে বাড়ি ফেরার পথে গণ’ধ-র্ষণের শি’কার হয়েছে এক কিশোরী (১৫)। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার ৪ জনকে শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগা’রে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তাররা হলো- বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ থানার আক্কাস আলীর ছেলে মো.শাহবুদ্দিন (২০), জামালপুরের বকশিগঞ্জ থানার বিল্লাল মন্ডলের ছেলে বাবু মন্ডল (২০) ও ময়মনসিংহের গৌরীপুর থানার আবুল হোসেনের ছেলে তোফাজ্জল হোসেন (১৯) ও মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর থানার খোরশেদ আলমের ছেলে মো. নয়ন (১৮)।

টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) মো. জাহিদুল ইসলাম জানান, ওই কিশোরী টঙ্গীর ভরান এলাকায় একটি পার্লারে কাজ করতো। শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে টঙ্গীর চেরাগ আলী এলাকা থেকে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়ে বাড়ি ফেরার পথে টঙ্গীর হিমারদীঘি এলাকায় পৌঁছালে ইজিবাইকের গতিরো’ধ করে ব’খাটেরা।

এ সময় ওই কিশোরীর সঙ্গে থাকা তার ছোট ভাই মো. আলম ও ইজিবাইকের চালককে মা’রধর করে কিশোরীকে জোর করে একটি ট্রাকে তুলে নিয়ে ৪ জন মিলে ধ-র্ষণ করে। একপর্যায়ে ইজিবাইকচালক মো. শামীম থানায় গিয়ে আইনগত সহায়তা চাইলে পুলিশ ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠায় এবং ৪ জনকে হাতেনাতে আটক করে।

ওই কিশোরীর পরিবার জানায়, চেরাগআলী এলাকায় পার্লারের মালিকের বাসায় বিয়ের অনুষ্ঠানে যায় তাদের মেয়ে। তবে রাতে নিরাপত্তার কথা ভেবে ছোট ভাইকে সঙ্গে নিলেও শেষ রক্ষা হয়নি। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে থানায় ধ-র্ষণ মামলা করেছেন।

ওসি (তদন্ত) জাহিদুল ইসলাম জানান, অভিযুক্ত ৪ জনই ট্রাকের হেলপার। ঘটনার পরপরই ধ-র্ষণের অভিযোগে তাদের আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পটিয়ায় ৪০ হাজার ইয়া-বা ও বৈদেশিক মুদ্রাসহ ৪ যুবক গ্রেপ্তার

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পটিয়ায় মোটরসাইকেলে তল্লাশি চালিয়ে ৪০ হাজার পিস ইয়া-বাসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে ১ হাজার ২শ পাউন্ড ও ২টি মোটর সাইকেল জ’ব্দ করা হয়।

রোববার দুপুর ২টায় জেলা পুলিশ লাইন্সে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব বিষয়ে জানান চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শনিবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পটিয়া উপজেলার মোজাফফরাবাদ এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে ২ মোটর সাইকেলের ৪ আরোহীর কাছ থেকে ৪০ হাজার ইয়া-বা উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ৪ যুবক ইয়া-বা পাচা’রকারী। তারা কক্সবাজার থেকে ইয়া-বা নিয়ে চট্টগ্রাম আসছিল।

গ্রেপ্তার ৪ জন হলেন- নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ থানার আব্দুল মান্নানের ছেলে মোজাম্মেল হক (৩০), চট্টগ্রামের মীরসরাই থানার মঘাদিয়া ইউনিয়নের মো. শাহজাহানের ছেলে মো. নুর নবী (২৪), সন্দ্বীপ থানার কালাপানিয়া ইউনিয়নের মো. হুমায়ুন কবিরের ছেলে মো. হাসমত কবির শাকিল (২১), একই থানার নোয়াখোলা ইউনিয়নের মো. ইব্রাহিম খলিলের ছেলে জাহেদুল ইসলাম রাতুল (২২)।

চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক বলেন, মোজাম্মেল, নুর নবী ও শাকিলের ব্যাগ তল্লাশি করে ৩৬ হাজার ও রাতুলের প্যান্টের পকেটে ৪ হাজার ইয়া-বা পাওয়া গেছে। এসব ইয়া-বার আনুমানিক বাজার মূল্য ১ লাখ ২০ হাজার টাকা।

অভিযানের সময় আমরা দুটি মোটর সাইকেল আটক করলেও অপর একটি মোটর সাইকেলে থাকা ৩ ইয়া-বা পাচা’রকারী পালিয়ে যায়। তাদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। তারা প্রত্যেকেই মা’দক চোরা-কারবারী দলের সক্রিয় সদস্য।

শেয়ার করুন !
  • 322
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply