লালমনিরহাটে প্রতিব’ন্ধী পুত্রবধূকে ধ-র্ষণ, শ্বশুর আটক

0

লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে প্রতিব’ন্ধী পুত্রবধূকে ভ’য়ভীতি দেখিয়ে ধ-র্ষণের অভিযোগে আমজাদ হোসেন ভোলা (৫০) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) রাতে কালীগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন ওই গৃহবধূ। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে আজ সকালে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আমজাদ হোসেন ভোলা উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের সফর উদ্দিনের ছেলে। পেশায় তিনি ভ্যানচালক।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আমজাদ হোসেনের ছেলের সঙ্গে প্রায় ৮ মাস আগে বিয়ে হয় শারীরিক প্রতিব’ন্ধী ওই নারীর। বিয়ের পর থেকেই তিনি শ্বশুরবাড়িতে থাকলেও তার স্বামী কাজ করতেন পঞ্চগড়ে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, স্বামীর অনু’পস্থিতিতে মাঝে মধ্যে ওই নারীকে ধ-র্ষণ করতেন তার শ্বশুর। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার বেলা ১১টার দিকে বাড়িতে অন্য কেউ না থাকায় আমজাদ হোসেন ছেলের বউকে ধ-র্ষণ করেন। ওই নারীর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আমজাদকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন। পরে পুলিশ এসে তাকে থানায় নিয়ে যায়।

ভিক্টিম গৃহবধূ জানান, বিয়ের পর থেকে ভ’য়ভীতি দেখিয়ে তাকে ধ-র্ষণ করতেন শ্বশুর। এর প্র’তিবাদ করলে ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক ছি’ন্ন করার হুম’কি দেয়। সোমবার দুপুরের দিকে তাকে আবারও ধ-র্ষণ করা হয়।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, পুত্রবধূর দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আমজাদ হোসেনকে মঙ্গলবার আদালতে পাঠানো হবে।

ফতুল্লায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে দে’হ-ব্যবসা, নারীসহ আটক ৪

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ফ্ল্যাট বাসা ভাড়া নিয়ে দে’হ-ব্যবসা করার অভিযোগে ৩ নারীসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে ফতুল্লার ধর্মগঞ্জের পাকাপুল এলাকার নিলুফার ২য় তলা ভবনের নিচতলা ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তাদের বিরু’দ্ধে মামলার পর পুলিশ বিষয়টি নিশ্চিত করে।

আটকরা হলেন- ধর্মগঞ্জের ভিতর পাকাপুল এলাকার নিলুফার বাড়ির ভাড়াটিয়া মনির হোসেনের স্ত্রী ডলি বেগম (৩৬), ফতুল্লার বিসিক কলাবাগান এলাকার পান্নার বাড়ির ভাড়াটিয়া রাজ্জাক মিয়ার মেয়ে মুন্নী (২২), ধর্মগঞ্জ মাওলাবাজার এলাকার ফিরোজ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া আব্দুল হকের মেয়ে হাসনা (২৩) ও ধর্মগঞ্জ কুট্টির বাড়ির ভাড়াটিয়া চান মিয়ার ছেলে আল-আমিন (৩৩)।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. শাহাদাত হোসেন জানান, ডলি বেগম ফতুল্লার ধর্মগঞ্জের পাকাপুল এলাকার নিলুফার ২য় তলা ভবনের নিচতলা ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে তরুণীদের দিয়ে দে’হ-ব্যবসা করে আসছিলেন। তার বাসায় বিভিন্ন বয়সী লোকের দিন-রাত আনাগোনা ছিল।

অভিযোগ পেয়ে পুলিশের একটি টিম ডলির ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সত্যতা পায়। এ সময় ওই ফ্ল্যাট থেকে ডলিসহ ৪ জনকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের এসআই রাসেল শেখ বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেন। আটকদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন !
  • 44
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply