‘নয়ন চ্যাটার্জি’ নামক ফেসবুক পেজের নেপথ্যে- জিয়া হাসান

0

বিশেষ প্রতিবেদন:

বেশ কয়েক বছর ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাসে আঘা’ত এবং নানা রকম উ’স্কানিমূলক পোস্ট দিয়ে দেশজুড়ে ধর্মীয় সহিং’সতা সৃষ্টিতে অভিযুক্ত পেজ- ‘নয়ন চ্যাটার্জি’। প্রপাগান্ডামূলক কর্মকাণ্ডের কারনে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাগুলো পেজটির ওপর নজর রাখলেও একে বন্ধ করা যায়নি চিরতরে।

বার বার অবস্থান পরিবর্তন করে ভিন্ন ভিন্ন ফোন নাম্বার ব্যবহার করে নতুনভাবে চালু করা হচ্ছিল পেজটি। আর ব্যাপকভাবে দেশজুড়ে উ’গ্রপন্থীদের কল্যাণে প্রপাগান্ডা ছড়িয়ে জনমনে বিভ্রা’ন্তি ও সাম্প্রদা’য়িক সম্প্রীতি ন’ষ্টের চেষ্টা করে যাচ্ছিল।

এবার জানা গেল এই পেজটির নেপথ্যে যে রয়েছে, তার নাম। কেএসএফ নিউজ নামক একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, জিয়া হাসান নামের এই ব্যক্তি পেজটির মাধ্যমে হিন্দুদের বিরু’দ্ধে মুসলমানদের উ’স্কে দেয়ার কাজ করেন। পাশাপাশি পেজটি থেকে দাবী করা হয় তার (জিয়া হাসান) এর সাথে বাংলাদেশের সামরিক বাহিনী থেকে শুরু করে বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার বড় বড় কর্মকর্তার সাথে হাত রয়েছে! নিজের সম্পর্কে পেজের এডমিন জানায়, তিনি বর্তমানে ভারতে অবস্থান করছেন।

সরকারিভাবে নিষি’দ্ধ ঘোষিত ইসলামী জ’ঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি) এর অঙ্গ সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিম (এবিটি) এর সাইবার শাখার হয়ে কাজ করা জিয়া হাসান হিন্দু নাম ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পেজ খুলে বিভিন্ন মিথ্যে তথ্য দিয়ে হিন্দুদের বিরু’দ্ধে মুসলমানদের মনে বিদ্বে’ষ সৃষ্টির কাজ করছে।

কেএসএফ নিউজ তাদের প্রতিবেদনে আরও দাবী করা হয়, জিয়া হাসান সম্পর্কে আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। জিয়া কলকাতায় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কমিউনিস্ট দলগুলোর সাথে মিলে এসব কাজ করছে। পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশের সাথে মিশিয়ে একটি বিশাল ইসলামিক রাষ্ট্র পরিণত করারও মিশন নিয়ে কাজ করছে তারা। জিয়া হাসানের সাথে কাজ করছে তার অনুগত বিপুল সদস্য।

প্রতিবেদকের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ‘নয়ন চ্যাটার্জি’ নামে হিন্দু পরিচয় ব্যবহার করে হিন্দু সংগঠনগুলোর সাংগঠনিক এবং শীর্ষ নেতাকর্মীদের গোপন তথ্যও হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে।

তথ্যসূত্র: কেএসএফ নিউজ

শেয়ার করুন !
  • 3.3K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply