খালুর ধ-র্ষণে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ১৫ বছরের ভাগ্নি‍!

0

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

বাবার মৃ’ত্যুর পর কাজের সন্ধানে কুমিল্লায় খালুর বাড়িতে এসে খালুর অ’ব্যাহত ধ-র্ষণে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে ১৫ বছর বয়সী কিশোরী ভাগ্নি।

এ ঘটনায় পুলিশ মেয়েটির খালু আবুল হাসেমকে গ্রেপ্তার করেছে। সোমবার নগরীর সংরাইশ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বিকেলে আদালতে স্বীকারো’ক্তিমূলক জবানব’ন্দি দেয়ার পর তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

আবুল হাসেম জেলার চান্দিনা উপজেলার কুটুম্বপুর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে। তিনি নগরীর সংরাইশ এলাকার একটি বাসায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকেন। ধ-র্ষক ওই কিশোরীর আপন খালু।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, ধ-র্ষিতা ওই কিশোরীর বাবা মা’রা যাওয়ার পর কাজের সন্ধানে সে তার খালু আবুল হাসেমের বাড়িতে আসে। সেখানে থেকে সে কুমিল্লা ইপিজেডের একটি কারখানায় শ্রমিকের কাজ করে আসছিল।

গত বছরের ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যায় ইপিজেডে কাজ শেষে বাসায় ফেরার পর আবুল হাসেম তাকে নানাভাবে ভ’য় দেখিয়ে ধ-র্ষণ করে এবং বিষয়টি কাউকে জানালে তার খালা এবং বাকপ্রতিব’ন্ধী মাকে মে’রে ফেলবে বলে হুম’কি দেয়। এরপর থেকে আবুল হাসেম বিভিন্ন সময়ে তাকে ধ-র্ষণ করে আসছিল।

সর্বশেষ গত ১৫ ফেব্রুয়ারি তাকে ধ-র্ষণ করে। বর্তমানে ওই কিশোরী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

এদিকে এ ঘটনায় ধ-র্ষিতা ওই কিশোরী বাদী হয়ে আবুল হাসেমকে আসামি করে সোমবার কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় সোমবার সকালে আবুল হাসেমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. সুমন মিয়া জানান, আসামি আবুল হাসেম কুমিল্লা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইরফানুল হক চৌধুরীর আদালতে স্বীকারো’ক্তিমূলক জবানব’ন্দি দিয়েছে। পরে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

রাজধানীতে ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃ’ত্যু

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় একটি ৬ তলা ভবনের ছাদ থেকে নিচে পড়ে তানজিরা রহমত (৬) নামের এক শিশুর মৃ’ত্যু হয়েছে।

সোমবার বেলা ১২টার দিকে খেলা করার সময় শিশুটি ছাদ থেকে নিচে পড়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে শিশুটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসেন স্থানীয়রা। বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ঢামেকের ওয়ান স্টপ আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চিকিৎসক শিশুটিকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

শিশুটির চাচা মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, তানজিরার মা ছাদে কাপড় শুকানোর সময় শিশুটি ছাদে খেলা করছিল। এক পর্যায়ে শিশুটি ছাদ থেকে নিচে পড়ে যায়।

তিনি আরও জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের সদর উপজেলার মমীন বাড়ি গ্রামে। বর্তমানে শিশুটির পরিবার সেগুনবাগিচায় থাকতেন। শিশুটি দুই ভাই-বোনের বড় ছিল।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া জানান, ওয়ানস্টপ আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা যায় শিশুটি। ডেডবডি ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

শেয়ার করুন !
  • 614
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!