একুশে পদকে বানান ভুল: তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ জারি

0

সময় এখন ডেস্ক:

‘একুশে পদক-২০২০’ এর পদকের ওপর কীভাবে ভুল বানান মুদ্রণ করা হলো, তা খতিয়ে দেখতে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠনের নির্দেশ জারি করেছে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

আজ রবিবার এই নির্দেশ জারি করা হয়। কমিটি যদি পদকের বানানের ভুলকে গুরুতর বিষয় হিসেবে অভিহিত করে, তবে পদকপ্রাপ্তদের কাছ থেকে পদক সংগ্রহ করে সেগুলো সঠিক বানানে মুদ্রণ করে আবার ফেরত দেওয়া হবে।

আদেশে জানানো হয়, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে বিভিন্ন গণমাধ্যমে একুশে পদকের বানান ভুল নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার প্রেক্ষিতে তদন্তের জন্যে এ নির্দেশ জারি করা হলো।

সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মো. শওকত আলীকে সভাপতি, যুগ্মসচিব হাসনা জাহান খানমকে সদস্য এবং সিনিয়র সহকারী সচিব জেসমিন নাহারকে সদস্য সচিব করে এ কমিটি গঠনে অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়টি গতকাল মঙ্গলবার নিশ্চিত করে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, একুশে পদকের বানানে কেন এমন হলো তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করব। কমিটির সদস্যরা পদকপ্রাপ্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করে পদক দেখে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সুপারিশ করবে।

চুয়াডাঙ্গায় স্বর্ণ পা’চার মামলায় একজনের যাবজ্জী’বন

চুয়াডাঙ্গায় স্বর্ণ পা’চার মামলায় শিপন রানা ওরফে বাবু (৩০) নামের এক যুবককে যাবজ্জী’বন কারাদ’ণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গার স্পেশাল ট্রাইবুনাল-১ এর বিচারক মোহাঃ রবিউল ইসলাম এক জনার্কীণ আদালতে এ রায় দেন।

দ’ণ্ডিত শিপন রানা দামুড়হুদা উপজেলার ঝাঁঝাডাঙ্গা গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

চুয়াডাঙ্গার পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট বেলাল হোসেন জানান, ২০১৭ সালের ১৪ এপ্রিল ভোরে চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির একটি টহল দল দামুড়হুদা উপজেলার পারকৃষ্ণপুর গ্রামে অভিযান চালায়। এ সময় গ্রামের প্রগতি লাইফ ইন্সুরেন্স অফিসের সামনে থেকে শিপন রানা ওরফে বাবুকে মোটরসাইকলেসহ আটক করে। পরে তার দেহ তল্লাশি করে উদ্ধার করা হয় ১ কোটি ১৯ লাখ ৭৭ হাজার ২৩ টাকা মূল্যের ৩টি স্বর্ণের বার। যার ওজন ৩ কেজি ১৭৫ গ্রাম।

এ ঘটনায় বিজিবির নায়েক সুবেদার তোতা মিয়া বাদী হয়ে দামুড়হুদা মডেল থানায় স্বর্ণ পা’চারের একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১৯৭৪ সালের স্পেশাল পাওয়ার এ্যাক্টের ২৫-বি (১) (এ) ধারায় অভিযুক্ত শিপন রানা ওরফে বাবুর বিরু’দ্ধে অভিযোগ আনা হয়।

তিনি আরো জানান, আলোচিত স্বর্ণ পা’চারের এ মামলায় দামুড়হুদা মডেল থানার ইন্সপেক্টর ইমদাদুল হক তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৩১ অক্টোবর একমাত্র আসামি শিপন রানা ওরফে বাবুকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

বিজ্ঞ আদালত এ মামলায় মোট ৮ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্যগ্রহণ করেন। স্বাক্ষ্যগ্রহণে আদালত অভিযুক্ত শিপন রানা ওরফে বাবুকে দোষী সাব্যস্ত করে তাকে যাবজ্জী’বন কারাদ’ণ্ডে দ’ণ্ডিত করেন।

শেয়ার করুন !
  • 130
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!