এই মোদিকেই প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছিল জামায়াত!

0

সময় এখন ডেস্ক:

ভারতের বিত’র্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) বিধানসভায় পাস হওয়ার পর থেকে বিশ্বজুড়ে মোদি সরকারের বিরু’দ্ধে আওয়াজ তুলেছে মানুষ। বাংলাদেশও এ নিয়ে চলছে তীব্র সমালোচনা। সর্বশেষ দিল্লির ঘটনায় বিশ্বনেতারা এ নিয়ে মুখ খুলেছেন।

সবাই গঠনমূলকভাবে সমালোচনা করে আসলেও বিশেষ করে ইসলামভিত্তিক রাজনৈতিক দলগুলো এই ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে বরাবর সাম্প্র’দায়িক উ’স্কানি দিচ্ছে।

বর্তমান সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপেই ইসলামভিত্তিক রাজনৈতিক দলগুলো মোদি ভক্তি খুঁজে বের করছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে শুরু করে সবখানে এর কঠোর সমালোচনাও করেছে। এই কাজে কখনও প্রকাশ্যে আবার কখনও আড়ালে বসেই প্রত্যক্ষ ভূমিকা রেখে চলেছে যু’দ্ধাপরাধী ও বাংলাদেশবিরো’ধী সংগঠন নিবন্ধন হারানো জামায়াতে ইসলামী।

অথচ এই মোদি নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার ক্ষমতাগ্রহণের সময় নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছিল বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আগামী দিনগুলোতে আরও জোরদার হবে এবং দু’দেশের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়বে- এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছিল সংগঠনটি সে সময়।

গত বছরের ২৪ মে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের এম. আলম স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে জামায়াতের তৎকালীন আমির মকবুল আহমদ বলেন, ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট বিজয় লাভ করায় আমি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে এনডিএ জোটের নেতা নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।


ছবি: নরেন্দ্র মোদীকে জানানো অভিনন্দন বার্তা- জামায়াতে ইসলামীর অফিসিয়াল মুখপাত্র দৈনিক সংগ্রামে প্রকাশিত প্রেস রিলিজ

তিনি বলেন, আশা করি, নরেন্দ্র মোদির সরকার ভারতকে উন্নতি ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং বাংলাদেশসহ প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সুসম্পর্ক আরও দৃঢ় করবে। বিশেষ করে বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আগামী দিনগুলোতে আরও জোরদার হবে এবং দু’দেশের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়বে।

মকবুল আহমদ তার বিবৃতিতে বলেন, আমি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

বিশিষ্টজনরা বলছেন- মোদির সাম্প্র’দায়িক রাজনীতির সাথে মিল রেখে বাংলাদেশে জামায়াতও রাজনীতি করছে। তাদের দু’দলেরই কাজ হচ্ছে ধর্মকে পুঁজি করে ক্ষমতা নিশ্চিত করা। সাম্প্র’দায়িক রাজনীতিতে তারা একই মায়ের পেটের দুই ভাই।

বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবর্ষ পালনে বাংলাদেশ আসবেন মোদি। ভারতের চলমান ঘটনার প্রেক্ষিতে মোদির বাংলাদেশ সফরে আপ’ত্তি জানাচ্ছেন অ’সাম্প্র’দায়িক চেতনায় বিশ্বাসীরা।

সেখানে সাম্প্র’দায়িক চেতনাকে ধারণ করে বড় একটি গোষ্ঠী একই প্রচারণা চালাচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মোদির আগমন ঘটলে ভালো হবে না বলে হুম’কিও দেয়া হচ্ছে। যার ফলে দেশের সাম্প্রদা’য়িক সম্প্রীতিকে বিন’ষ্ট করার পাঁয়তারা করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন !
  • 27.4K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!