তাজমহল না থাকলে বিশ্ববাসীকে গোবরই দেখাতো মোদি- ১১ বছরের শিশুর ভাষণ (ভিডিও)

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

মোদি সরকার ও তার নীতির সমালোচনা যেন পিছু ছাড়ছে না। মোদি সরকারের সমালোচনায় পিছিয়ে থাকেনি ১১ বছরের বালক। ভারতের সাম্প্রতিক ইস্যু নিয়ে এ বালক বিশ্বকে উচ্চকণ্ঠে জানিয়ে দিল, আজ যদি তাজমহল ও লালকেল্লা না থাকত, তাহলে বিশ্বকে গরু ও গোবেই দেখাতে হতো ক্ষমতাসীন সরকারকে।

সম্প্রতি ভারতের বিহারে কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়ার (সিপিআই) নেতা ও জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার এক সমাবেশের আয়োজন করেন। সেখানে মোদি সরকারের বিরু’দ্ধে বক্তব্য দিয়ে আলোচনায় এসেছে এই বালক। সমাবেশে সে মোদি সরকারের বিরু’দ্ধে স্লো’গান দেয়।

১১ বছরের এই বালকের বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সে তার বক্তব্যে মুঘল শাসনামলের স্থাপত্যের (তাজমহল ও লালকেল্লা) ভূয়সী প্রশংসা করে এবং কেন্দ্রীয় সরকারকে ব্য’ঙ্গ করে। এ সময় করতালিতে ভরে যায় পুরো সমাবেশস্থল।

ভারতীয় টিভি চ্যানেল টাইমস নিউজ নাউ-এর অনলাইন প্রতিবেদনে বলা হয়, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ), জাতীয় নাগরিক নিবন্ধন (এনআরসি) ও জাতীয় গণপুঞ্জির (এনপিআর) প্র’তিবাদে সমাবেশ করে সিপিআই। এতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন দলটির নেতা কানহাইয়া কুমার। তারই অংশ হিসেবে ২৭ ফেব্রুয়ারি বিহারের পাটনায় ‘সংবিধান বাঁচাও’ র‌্যালির এই আয়োজন করে সিপিআই। সেখানে বক্তব্যের সুযোগ পায় এই বালক।

১ মিনিট ৮ সেকেন্ডের ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সাদা টি-শার্ট ও চশমা পরিহিত বালক আঙুল উঁচিয়ে উঁচিয়ে মোদি সরকারের সমালোচনা করে যাচ্ছে। বক্তব্যের একপর্যায়ে সিপিসি নেতা কানহাইয়া কুমার তাকে বাহবা দেন। তবে আলোচিত এই বালকের নাম ও তার পরিচয় প্রকাশ করেনি টাইমস নিউজ নাউ।

সম্প্রতি ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সহিং’সতায় ৪২ জনের মৃ’ত্যু হয়। আহত হয় ৩ শতাধিক মানুষ। নাগরিকত্ব সংশোধনী (সিএএ) আইনকে কেন্দ্র করে গত রোববার থেকে দিল্লির উত্তর-পূর্বের বিভিন্ন শহরে সহিং’সতা ছড়িয়ে পড়ে।

দিল্লির ঘটনায় দেশটির সরকার ও পুলিশ প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের সমালোচনা করেন দেশটির সুশীল সমাজও।

শেয়ার করুন !
  • 128
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply