মাদ্রাসা শিক্ষকদের বেতন বাড়িয়ে দিলেন মমতা

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

দীর্ঘদিন ধরেই বেতন বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করছিলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারীরা। এবার তাদের দাবি মেনে নিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার মাদ্রাসা শিক্ষক ও কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধিসংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। খবর জিনিউজের।

গত বছরের ১ এপ্রিল থেকে নতুন কাঠামো অনুযায়ী মাদ্রাসার শিক্ষক ও কর্মচারীরা বেতন পাবেন বলে জানানো হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার ইতিমধ্যে ষষ্ঠ বেতন কমিশন বাস্তবায়ন করেছে। এবার মাদ্রাসাগুলোর মুখ্য সম্প্রসারক, সম্প্রসারিকা, করণিক ও গ্রুপ ডি কর্মীদের বেতন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হলো।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, মাদ্রাসা শিক্ষাকেন্দ্র, মাধ্যমিক শিক্ষাকেন্দ্র ও শিশু শিক্ষাকেন্দ্রের শিক্ষক ও কর্মীদের বেতন বাড়ল। ১ এপ্রিল ২০১৯ সাল থেকে কার্যকর হচ্ছে বেতন কাঠামো।

এখন মাদ্রাসার গ্রুপ ডি কর্মীর ন্যূনতম বেতন ৫ হাজার ৬৫৬ টাকা। সেটিই বেড়ে হলো ৯ হাজার টাকা। মুখ্য সম্প্রসারকদের ন্যূনতম বেতন ছিল ১০ হাজার ৪২১ টাকা। সেটিই বেড়ে হয়েছে ১৪ হাজার। নতুন বেতন কাঠামোয় গড়ে সব স্তরেই বেতন বেড়েছে ৩ থেকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা।

করোনা এড়াতে নমস্কার প্রথা চালুর পরামর্শ মোদির

দেশীয় রীতিতে করোনা ভাইরাসের সংক্র’মণ অনেকটাই এড়ানো যাবে, তাই হাতে হাত মিলিয়ে শুভেচ্ছা বা করমর্দনের পরিবর্তে হাত জোড় করে ‘নমস্তে’ বা নমস্কার করার পরামর্শ দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

করোনার সংক্র’মণ এড়াতে নমস্কার সম্বোধনের অভ্যাস গড়ে তোলার তাগিদ দিয়েছেন তিনি। শনিবার ভারতীয় জনৌষধি পরিযোজন প্রকল্পের উপভোক্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলাপকালে এ পরামর্শ দেন মোদি। খবর এনডিটিভির।

করোনা ভাইরাসের আত’ঙ্কের মধ্যে বিশ্ব এখন ভারতীয় ‘নমস্তে’ বা নমস্কার পদ্ধতি গ্রহণ করছে দাবি করে মোদি বলেন, যদি কোনো কারণে আমরা এই অভ্যাসটি ছেড়ে দিয়ে থাকি তবে আবার তা গ্রহণের সময় এসেছে। হাত ধরে শুভেচ্ছাবার্তা বিনিময়ের পরিবর্তে আবার নমস্কার করার অভ্যাসটি শুরু করুন, এটিই এখন উপযুক্ত সময়।

করোনা ভাইরাস নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াসহ বিভিন্নভাবে নানা গুজব ছড়ানো হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন নরেন্দ্র মোদি। কোনো ধরণের গুজবে কান না দেয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়ে করোনার কোনো লক্ষণ দেখলে এ বিষয়ে চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুসরণের আহ্বান জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ভারতজুড়ে করোনা ভাইরাসের আত’ঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ভাইরাসে আক্রা”ন্তের সংখ্যা বেড়ে ৩১- এ দাঁড়িয়েছে।

ম’হামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের আঁচ পড়েছে হিন্দুদের অন্যতম প্রধান উৎসব হোলি মিলনেও। করোনা আত’ঙ্কে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনের নিয়মিত হোলি অনুষ্ঠান বাতিল করেছে দেশটির সরকার।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস আত’ঙ্কে তাজমহলসহ ভারতের ঐতিহাসিক সব স্থাপনা সাময়িকভাবে বন্ধ করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন !
  • 5.5K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!