ফ্রিতে দেয়ার হ্যান্ড স্যানিটাইজার বানালো ঢাবির ফার্মেসি অনুষদ

0

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

বাংলাদেশে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। আবার মজুদ করে রাখার কারণে চাহিদা মোতাবেক এসব প্রয়োজনীয় দ্রব্য পাওয়া যাচ্ছে না। যে কারণে শিক্ষার্থীদের কাছে বিনামূল্যে দেওয়ার জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বায়োমেডিক্যাল রিসার্চ সেন্টার ও ফার্মেসি অনুষদ।

স্যানিটাইজারটি তৈরির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ক্লিনিক্যাল ফার্মেসি ও ফার্মাকোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল মুহিত। জানতে চাইলে তিনি বলেন, নিজেদের রেসপন্সিবিলিটি থেকে আমরা এটি প্রস্তুত করেছি। কিন্তু এটি শুধুমাত্র শিক্ষার্থীদের জন্য নিজেদের ফান্ড থেকে। প্রথমদিন আমরা ২০০ বোতল তৈরি করেছি। যার জন্য খরচ হয়েছে ২০ হাজার টাকা। নিজেদের সাধ্যমতো ও ফান্ড পেলে এটি আরও বেশি প্রস্তুত করে শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে।

অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এস এম আব্দুর রহমান বলেন, এটি একটি সময় উপযোগী উদ্যোগ। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা মিলে এটি তৈরি করেছে।

অপরদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আবু হোসেন মুহাম্মদ আহসান শিক্ষার্থীদের জন্য এসব হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণের জন্য ফান্ড কালেকশন করার উদ্যোগ নিয়েছেন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। অনেক শিক্ষক সেখানে ইতিবাচক সাড়া দিয়ে সহযোগিতা করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, করোনা নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে। আত’ঙ্কিত হওয়া যাবে না। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সেমিনার আয়োজনের মাধ্যমে সচেতনতা তৈরি করছে। শিক্ষকেরা যখন আমার কাছে এসেছিলেন তখন আমি করোনা প্রতিরো’ধে কিছু করা যায় কিনা দেখতে বলেছি। স্যানিটাইজার তৈরি অবশ্যই ভালো উদ্যোগ। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সবসময় সহযোগিতা করবে বলে তিনি জানান।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষদিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের বিস্তার শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১২৫টির বেশি দেশে কোভিড-১৯ এ আক্রা’ন্তের সংখ্যা প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজারে দাঁড়িয়েছে। মৃ’ত্যু হয়েছে ৫ হাজারের বেশি মানুষের। ইতোমধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) কোভিড-১৯ এর বিস্তারকে বৈশ্বিক ম’হামারী ঘোষণা করেছে।

শেয়ার করুন !
  • 41
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply