জমি না পেয়ে ব্যবসায়ীর মাথা ফা’টালেন এএসপি জ্যোতির্ময়!

0

নরসিংদী প্রতিনিধি:

নরসিংদীর পলাশে নিজের পছন্দের জমি কিনতে না পেরে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে মোরশেদ আহম্মেদ (৪০) নামে এক ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে পি’টিয়ে মাথা ফা’টানোর অভিযোগ উঠেছে মোহাম্মদপুর জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) জ্যোতির্ময় সাহার (অপু) বিরু’দ্ধে।

শনিবার দুপুরে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পলাশ বাজারে এএসপির নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পরে আহত অবস্থায় স্থানীয়রা ওই ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

আহত মোরশেদের মাথায় ৭টি স্টিচ দেয়া হয়েছে বলে জানান চিকিৎসক। মোরশেদ পলাশ বাজারের একজন কাপড় ব্যবসায়ী।

চিকিৎসাধীন মোরশেদ বলেন, ১৫ দিন আগে পলাশের সাবেক চেয়ারম্যান ইসলামের স্ত্রী মরিয়ম বেগমের কাছ থেকে পলাশ বাজার এলাকায় সাড়ে ৬ শতাংশ সম্পত্তি ৪২ লাখ টাকায় কেনার জন্য কথা হয়। পরে ওই সম্পত্তি কেনার জন্য ২ ধাপে ২০ লাখ টাকা বায়না করি। আগামী ১ মাসের ভেতরে পুরো টাকা পরিশো’ধ করে ওই সম্পত্তি আমার নামে দলিল করার কথা।

কিন্তু আমি জানতাম না যে, এই সম্পত্তির ওপর আগে থেকেই এএসপি জ্যোতির্ময় সাহার নজর ছিল। তিনি এই সম্পত্তি কিনতে চান এমন কোনো কথা আগে কখনও স্থানীয়দের বা প্রতিবেশীদের কাছে বলেননি। আজ দুপুরে আমার দোকানে লোক পাঠিয়ে এএসপি জ্যোতির্ময় সাহার কথা বলে উনার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান।

সেখানে যাওয়ার পর প্রথমেই এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা আমাকে বাপ-মা তুলে গা’লাগাল করেন। একপর্যায়ে আমাকে চ’ড় দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে উনার রুমে থাকা জাকির ও শাহিন নামে দু’জন আমাকে কাঠ দিয়ে পে’টানো শুরু করে।

এ সময় এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা বলতে থাকেন, তোর এত বড় সাহস? আমি যে সম্পত্তি কেনার জন্য ঘুরতেছি- তুই সে সম্পত্তি বায়না করার সাহস পাইলি কই? তোর এত টাকা আসলো কোত্থেকে? কোথায় পেলি সেই সাহস? একপর্যায়ে আমি অ’জ্ঞান হয়ে যাই। জ্ঞান ফিরলে দেখি আমি হাসপাতালে।

মোরশেদের মামা মোহাম্মদ টিটু মোল্লা বলেন, মোরশেদকে এএসপি জ্যোতির্ময় সাহার বাড়িতে আটকে মা’রধর করছে- খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে ওখান থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নরসিংদীর এসপিকেও জানিয়েছি।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা অপুর ব্যক্তিগত মোবাইলে কল দিলে তার মাসতুতো ভাই পরিচয়ে রনি নামের এক যুবক ফোন রিসিভ করে জানান, উনি ঘুমাচ্ছেন। উনার সঙ্গে কথা বলতে হলে ২ ঘণ্টা পর কল দিন।

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ওসি শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, পলাশ বাজারের এক ব্যবসায়ীকে পে’টানোর খবর পেয়ে হাসপাতালে থানা পুলিশকে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন !
  • 522
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply