গ্রেপ্তার করতে গিয়ে আসামির বাবাকে রক্ত দিলেন এসআই বদিউল!

0

সময় এখন ডেস্ক:

গত বেশ কয়েক বছর ধরেই চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) সদস্যরা সেবার অনন্য নজির স্থাপন করে চলেছেন। মানবিকতার ঘটনাগুলো সাধারণ মানুষকে পুলিশের প্রতি দৃঢ় আস্থা তৈরী করছে। এবার তেমন আরেকটি ঘটনা প্রমাণ করেছে, সবার ওপর মানুষ সত্য, তাহার উপর নাই।

হ’ত্যা মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আসামির বাবাকে রক্ত দিলেন পুলিশের এক কর্মকর্তা। মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী ওই কর্মকর্তার নাম বদিউল আলম। তিনি আকবরশাহ থানার এসআই হিসেবে কর্মরত। শনিবার রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তারকৃত আসামির নাম এমদাদ হোসেন। তার বাড়ি নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার বীর নারায়াণপুর গ্রামে।

থানা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ২৫ অক্টোবর আকবরশাহ থানার কৈবল্যধাম রেললাইন এলাকার রশিদ কলোনিতে ছু’রিকাঘা’তে খু’ন হন জসিম উদ্দিন নামে এক যুবক। এমদাদ ওই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি।

বদিউল আলম জানান, ৪ মাস ধরে এমদাদ হোসেন আত্ম’গোপনে ছিলেন। গোপনে জানতে পারি চট্টগ্রাম মেডিকেলে চিকিৎসাধীন তার বাবাকে দেখতে আসবেন তিনি। তার আসার আগ থেকেই হাসপাতালে গিয়ে ওঁৎ পেতে থাকি। আসার সঙ্গে সঙ্গে তাকে গ্রেপ্তার করি। এ সময় এমদাদ জানায়, তার বাবার অপারেশন হয়েছে। রক্ত সংগ্রহ করতে হাসপাতালে এসেছেন তিনি।

তার বাবার রক্তের গ্রুপের সঙ্গে আমার রক্তের গ্রুপ মিলে যাওয়ায় তার বাবাকে রক্ত দিই। পরে এমদাদকে আদালতে পাঠানো হলে আদালত তাকে কারাগা’রে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এসআই আরও বলেন, আমি প্রশংসা পাওয়ার জন্য রক্ত দিইনি। তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে এলে হয়তো রক্ত জোগাড় করা সম্ভব হবে না। এতে তার অসুস্থ বাবার ক্ষ’তি হতে পারে। আর আমার রক্তের গ্রুপ যেহেতু একই তাই রক্ত দিয়েছি।

বদিউল আলম বলেন, আসামির বাবা বিবেচনায় নয়, মানুষ বিবেচনায় রক্ত দিয়েছি। ওর বাবা না হয়ে অন্য যে কেউ হলেও রক্ত দিতাম।

শেয়ার করুন !
  • 34
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!