টিসিবির পণ্য যাচ্ছে কালোবাজারে, দেখার কেউ নেই!

0

সময় এখন ডেস্ক:

ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) ন্যায্যমূল্যের পণ্য কালোবাজারে পাচা’র হওয়ার ঘটনা ঘটেই চলেছে। করোনার এ সময়ে দেশ যখন সং’কটকাল পার করছে তখন একশ্রেণির অ’সাধু ব্যবসায়ী, ডিলার ও টিসিবির কর্মকর্তাদের যোগসাজশে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য খোলাবাজারে বিক্রি করতে বরাদ্দ পণ্য কালোবাজার চলে যাচ্ছে। এ বিষয়ে টিসিবির কোনো তদারকিই নেই। অন্য কোনো সরকারি সংস্থার কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলেই কেবল ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

এদিকে করোনা রো’ধে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার সরকারি নির্দেশনা মানা হচ্ছে না টিসিবির ট্রাকে পণ্য বিক্রির সময়।

টিসিবির হিসাবে গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ১৭ দিনে কালোবাজারে পণ্য পাচা’রের ২০টি ঘটনা তারা জানতে পেয়েছে। সর্বশেষ গত বুধবার রংপুর শহরের মধ্যপার্বতীপুর এলাকার হানিফ মিয়ার বাড়ির খাটের নিচ থেকে টিসিবির ১ হাজার ২৩৮ লিটার সয়াবিন তেল জ’ব্দ করে মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। ওই ঘটনায় ২ জনকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে ১ এপ্রিল ঝালকাঠিতে টিসিবির পণ্য কালোবাজারে বিক্রি করার উদ্দেশ্যে মজুদ করায় ৩ ডিলারকে ২৮ হাজার টাকা জরি’মানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বেশি পরিমাণে পণ্য মজুদ করায় রুবেল ট্রেডার্সের ডিলারশিপ বাতিলের সুপারিশ করা হয়। এরপর গত ৬ এপ্রিল রাতে রংপুর নগরীর বাবুপাড়া এলাকায় খালেক মিয়ার গুদাম থেকে ৩৬৪ লিটার সয়াবিন তেল, ২ হাজার ৩৫০ কেজি চিনি, ১০ বস্তা মসুর ডাল এবং ২৫০ কেজি পেঁয়াজ আটক করা হয়। টিসিবি রংপুর কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক সুজা ওই সময় জানান, খালেক মিয়া নামে টিসিবির কোনো ডিলার নেই।

গত ১১ এপ্রিল টিসিবির পণ্য কালোবাজারে বিক্রির দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার রামপুর বাজারের ডিলার মুজাহিদুল ইসলামকে ৫০ হাজার টাকা জরি’মানা করেন। এ ছাড়া তার গুদাম সিলগালা করে দেন। ৯ এপ্রিল উপজেলার কৃষ্ণরামপুর বাজারে টিসিবির পণ্য কালোবাজারে বিক্রির সময় স্থানীয় লোকজন ৪৬ লিটার সয়াবিন তেলসহ ২ জনকে আটকের পর ওই অভিযান চালানো হয়।

এরপর ১৩ এপ্রিল একই অভিযোগে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার মুলাডুলিতে ডিলারসহ ২ জনকে আটক করে পুলিশ। এ সময় টিসিবির ৫ বস্তা চিনি, ২ বস্তা মসুর ডাল ও ৪ বস্তা ছোলা বিক্রির জন্য মজুদ করে তারা। গত ১৪ এপ্রিল নড়াইল শহরের রূপগঞ্জ বাজারের টিসিবির ডিলার পরিতোষ কুণ্ডু ও সদর উপজেলার নাকশী বাজারের ব্যবসায়ী লিটন শিকদারকে আটক করা হয়। জ’ব্দ করা হয় টিসিবির ১৮ বস্তা চিনি এবং ২৪ বস্তা ছোলা (প্রতি বস্তায় ২৫ কেজি)।

ট্রাকে করে টিসিবির পণ্য বিক্রি সরেজমিনে ঘুরে এবং গোয়েন্দা তথ্য বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, টিসিবি ডিলারদের কেউ কেউ ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করার জন্য পণ্য উত্তোলন করেই সরাসরি কালোবাজারে বিক্রি করে দিচ্ছে। অনেক ডিলার টিসিবি থেকে পণ্য উত্তোলন করে ট্রাকে করে বিক্রি করার আগে অর্ধেক পণ্য সরিয়ে ফেলছে এবং কালোবাজারে বিক্রি করে দিচ্ছে। গ্রাহকরা অভিযোগ করেন, ডিলাররা যখন পণ্য নিয়ে ট্রাকে করে বিক্রি করতে আসে তখন বরাদ্দ করা পুরো পণ্য আনা হয়েছে কি না তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে না। টিসিবির কিছু অ’সাধু কর্মকর্তা এসব অ’পকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে গ্রাহকদের সন্দেহ।

টিসিবির মুখপাত্র হুমায়ুন কবির বলেন, আমাদের নিজেদের কোনো তদারকি বা তদন্ত টিম নেই। তবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে যদি কোনো লিখিত অভিযোগ বা সুপারিশ আসে তবে আমরা তার ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিই। সাধারণত ডিলারদের বিষয়ে অভিযোগ এলে আমরা শোকজ করি, প্রয়োজন মনে করলে জামানত (১৫ হাজার টাকা) বাতিল করি। অভিযোগের ভিত্তিতে ডিলারশিপ বাতিলও হয়। ১৫ থেকে ১৭ দিনে এমন ২০টির মতো অভিযোগ পাওয়া গেছে এবং ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে সর্বোচ্চ কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা তিনি বলতে পারেননি।

হুমায়ুন কবির আরো বলেন, জেলা পর্যায়ে আমাদের কাজ করেন ৩ জন কর্মকর্তা। এই জনবল দিয়ে কী করে নিজেরা তদারকি করব। পণ্য বিক্রির সময় শারীরিক দূরত্বের বিষয়টি মানা হচ্ছে না স্বীকার করে তিনি বলেন, এ বিষয়ে ডিলারদের নির্দেশনা দেওয়া আছে। কোথাও কোথাও ব্যানারে লেখা থাকে, বৃত্ত করে দেওয়া হয়। কিন্তু তার পরও ক্রেতাদের মানানো যাচ্ছে না।

ঢাকার বাইরের চেয়ে ঢাকায়ই নির্দেশনা উ’পেক্ষা বেশি হচ্ছে বলে মনে করছেন তিনি। হুমায়ুন কবির বলেন, পরিদর্শন করে যতটুকু দেখেছি, ঢাকার মধ্যেই ১০০ ট্রাকের ৫০টিতেই গ্রাহকদের এ নির্দেশনা মানানো যাচ্ছে না।

শেয়ার করুন !
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!