করোনা-চিকিৎসায় আশার আলো দেখাচ্ছে যে ওষুধ

0

স্বাস্থ্য বার্তা ডেস্ক:

বিশ্বজুড়ে দাপট চালিয়ে যাচ্ছে করোনা ভাইরাস। এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি ক্ষ’তিগ্রস্ত অবস্থায় আছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে এ পর্যন্ত আক্রা’ন্ত হয়েছে সোয়া ১০ লাখ মানুষ। মা’রা গেছে ৬৩ হাজার ৭৬৬ জন। এ ভাইরাসের প্রতিষেধক অবিষ্কারের জন্য পৃথিবীর সব দেশের বিজ্ঞানীরা দিনরাত কাজ করছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত আশ্বাস বাণী ছাড়া তেমন কোনো উন্নতির খবর পাওয়া যায়নি।

তবে এর মধ্যে করোনা চিকিৎসায় নতুন আশার আলো দেখাচ্ছেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, এই ভাইরাসের বিরু’দ্ধে অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ রেমডেসিভির এর (Remdesivir) কার্যকরী প্রভাব দেখা গেছে। পরীক্ষামূলক প্রয়োগে সাফল্যও মিলেছে বলে কার্যত দাবি করছে হোয়াইট হাউজ।

বুধবার আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশিয়াস ডিজিজের প্রধান অ্যান্থনি ফৌসি (Anthony Fauci) হোয়াইট হাউজে সাংবাদিকদের বলেন, পরিসংখ্যান বলছে, করোনা আক্রা’ন্তদের ওপরে রেমডেসিভির প্রয়োগ করে দেখা গিয়েছে যে তারা দ্রুত সুস্থ উঠছেন।

এক্ষেত্রে অন্য ওষুধের ক্ষেত্রে রেমডেসিভির প্রয়োগে সুস্থতার হার ৩০ শতাংশ বেশি বলেও দাবি করেছেন তিনি। মানবদেহের কোষের মধ্যে প্রবেশ করে ভাইরাসের বৃদ্ধি ঠেকিয়ে দেওয়ার মতো ক্ষমতা রেমডেসিভির-এর আছে বলেও দাবি করেছেন মার্কিন শীর্ষ এই বিশেষজ্ঞ।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, এই মুহূর্তে রেমডেসিভির এর ফেজ-থ্রি ট্রায়াল হয়েছে। আমেরিকা, ইউরোপ, এশিয়ার মোট ৬৮টি স্থানে ১ হাজার ৬৩ জন করোনা আক্রা’ন্তের শরীরে পরীক্ষামূলকভাবে রেমডেসিভির প্রয়োগ করা হয়েছে। এতে উল্লেখযোগ্য ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গেছে বলে দাবি। করোনা রোগীর ওপর প্রয়োগের অনুমতি চেয়ে আবেদনও করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

আমেরিকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউটস অব হেলথও করোনার যে কয়েকটি ওষুধ নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে, এরই একটি হল রেমডেসিভির। গিলেড সায়েন্সেসের তৈরি এই ওষুধটি ইবোলার বিরু’দ্ধে পরীক্ষা করা হয়েছিল। তবে সেভাবে সাড়া ফেলতে পারেনি।

পরে বিভিন্ন পশুর শরীরে চালানো বেশ কয়েকটি পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে কোভিড-১৯, সার্স ও মার্সসহ ভাইরাস সংক্রান্ত সংক্র’মণ প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় এই ওষুধ কার্যকরী।

শেয়ার করুন !
  • 51
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply