নারীদের মার্কেটে না আসার অনুরোধ করে মাইকিং, ভিড় কমেনি একটুও!

0

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:

মার্কেটে নারীদের না আসার অনুরোধ জানিয়ে নেত্রকোনায় মাইকিং করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার চেম্বার অব কমার্সের নেত্রকোনা জেলা শাখার পক্ষ থেকে এই মাইকিং করা হয়।

ওই মাইকিংয়ে বলা হয়, দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অঙ্গীকার করে দোকানপাট খুলে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বাজার মনিটরিংয়ে দেখা যাচ্ছে, স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে অনুসরণ করা হচ্ছে না। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পারলে স্থানীয় প্রশাসন ও চেম্বার অব কমার্সের পক্ষ থেকে পুনরায় দোকানপাট বন্ধের ঘোষণা দিতে হবে। এমতাবস্থায় মা-বোনদের বাজারে না আসতে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

এ বিষয়ে চেম্বার অব কমার্সের জেলা শাখার সভাপতি আবদুল ওয়াহেদ জানান, ঈদের কেনাকাটা করতে জেলা সদরের বিভিন্ন দোকানপাটে নারীরা ভিড় করছেন। অনেকে ছোট শিশুদেরও নিয়ে আসছেন। তাদের ভিড়ের কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব হচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে তাদের সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে বাজারে না আসার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

তবে মাইকিং করা হলেও বাজারে নারী ক্রেতাদের ভিড় একটুও কমেনি। আজ বেলা ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত জেলা সদরের বড়বাজারের গার্মেন্ট, কাপড়, কসমেটিক ও জুতার দোকানগুলো ঘুরে উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। ক্রেতাদের বেশিরভাগই নারী। তাদের অনেকের মুখে মাস্ক নেই। সামাজিক দূরত্বের বিষয়টিও অনেকে মাথায় নিচ্ছেন না। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা থাকার কথা থাকলেও অনেক প্রতিষ্ঠানে এসব স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা হচ্ছে না।

চলবে না গণপরিবহন, অন্য যানবাহনে কঠোর নিয়ন্ত্রণের নির্দেশ

সাধারণ ছুটি চলাকালে ঈদের সময়ে গণপরিবহন, যাত্রীবাহী নৌযান, রেল ও প্লেন চলাচল বন্ধ থাকার কথা জানিয়ে জরুরি সেবা ছাড়া অন্য যানবাহন কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মে) করোনা ভাইরাসজনিত রোগ কোভিড-১৯ এর বিস্তার রো’ধকল্পে শর্তসাপেক্ষে সাধারণ ছুটি/ চলাচলে নিষে’ধাজ্ঞা বর্ধিতকরণ সংক্রান্ত মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনায় এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ‘সাধারণ ছুটি/ চলাচলে নিষে’ধাজ্ঞাকালে কেউ কর্মস্থল ত্যাগ করতে পারবে না। উক্ত সময়ে সড়কপথে গণপরিবহন, যাত্রীবাহী নৌযান ও রেল চলাচল এবং অভ্যন্তরীণ র‌্যুটে বিমান চলাচল বন্ধ থাকবে এবং মহাসড়কে মালবাহী/ জরুরি সেবায় নিয়োজিত যানবাহন ছাড়া অন্য যানবাহন কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।’

করোনা ভাইরাস বিস্তার রো’ধে আগামী ৩০ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বাড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

গতকাল বুধবার (১৩ মে) বিকেলে তিনি জানান, ছুটি ১৭ মে থেকে ৩০ মে পর্যন্ত বাড়বে। ঈদের ছুটিও এই সাধারণ ছটির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকবে। ঈদের ছুটির সময় মানুষের গ্রামের বাড়ি যাওয়া ঠেকাতে এর আগের ৪ দিন এবং পরের ২ দিনসহ মোট ৭ দিন জরুরি সেবা ছাড়া কোনো যানবাহন চলবে না।

গত ২৬ মার্চ থেকে দফায় দফায় বাড়ানো সাধারণ ছুটি আপাতত শেষ হচ্ছে ১৬ মে। ৬ষ্ঠ দফা ছুটি শেষে ১৭ থেকে ২০ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা হতে পারে। এবং ঈদের আগের ৪ দিন মিলে ২১ থেকে ২৬ মে ৬ দিন ঈদের ছুটি ঘোষণা হতে পারে।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ঈদ উল ফিতর উদযাপিত হতে পারে ২৪ বা ২৫ মে। ঈদের পরের ২৭ ও ২৮ মে এবং ২ দিন সাপ্তাহিক ছুটি মিলে ৩০ মে শনিবার পর্যন্ত ছুটি বাড়তে পারে।

করোনা এড়াতে গত ২৬ মার্চ থেকে চলমান সাধারণ ছুটিতে গণপরিবহন চলাচলও বন্ধ রয়েছে। আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রেখেছে সরকার।

শেয়ার করুন !
  • 33
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!