প্রথম দেখায় বন্ধু কোহলি যা করলো, ভাবতেই পারিনি- বললেন ইমরুল ব্রো

0

স্পোর্টস ডেস্ক:

মাঠের বিরাট কোহলির সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারেন না অনেকেই। তার আগ্রা’সী ভঙ্গিমা খে’পিয়ে তোলে প্রতিপক্ষ দলের ক্রিকেটার হতে শুরু করে ভক্তদেরও। সেই তালিকা থেকে বাদ যাননি কোহলির বন্ধু ইমরুল কায়েসও। গত বুধবার রাতে ফেসবুক লাইভ আড্ডায় কিছু অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন বাংলাদেশের ভক্তদের অতি প্রিয় ইমরুল ব্রো, দলে যার ডাক নাম পটু।

জাতীয় দলে আসার আগে থেকেই বিদেশে ক্যাম্পে থাকার কারণে গড়ে ওঠে তাদের বন্ধুত্ব। গত নভেম্বরে ভারত সিরিজে কোহলির সঙ্গে একটি ছবি দিয়ে জানিয়েছেন দুজনের মধ্যে ১৩ বছরের বন্ধুত্বের কথা। প্রথম দেখায় সেই বন্ধু ইমরুলকেও ছাড় দেননি কোহলি।

জাতীয় দলে আসার আগে ২০০৭ সালে অস্ট্রেলিয়াতে একটি ক্যাম্প করতে গিয়ে কোহলির সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে ইমরুলের। প্রায় মাসখানেক একসঙ্গে অনুশীলন করতেন, দুজনে ব্যাটিং পার্টনার ছিলেন। ইমরুল বলেন, ২০০৭ সালের ঘটনা, অস্ট্রেলিয়াতে একটা ক্যাম্প হয়। প্রায় ১ মাস আমরা এক সাথে অনুশীলন করতাম, একসাথে গল্প হত। যেহেতু আমরা দুজনেই পাশের দেশের মানুষ অস্ট্রেলিয়াতে ক্যাম্প করছি। আমি আর বিরাট একসাথেই থাকতাম। মেশিনে যখন ব্যাটিং করতাম; আমাদের দুজনকে ব্যাটিং পার্টনার করে দিত ওখানকার কোচ। অনুশীলন শেষে আমরা অনেক্ষণ ধরে গল্প করতাম, আড্ডা দিতাম।

জাতীয় দলে ইমরুল-কোহলির অভিষেক হয় এর পরের বছরেই ২০০৮ সালে। কিন্তু দুজনের প্রথম দেখা হয় ২০১১ সালে। ততদিনে কোহলির আগ্রা’সী ভঙ্গিমা পরিচিত হয়ে উঠছিল ধীরে ধীরে। এই প্রথম ম্যাচেই ইমরুলকে স্লেজিং করে বসেন কোহলি। এটা ভাবতেই পারেননি ইমরুল।

যখন জাতীয় দলে ঢুকলাম ওর সাথে আমার প্রথম খেলা হলো ২০১১ সালে। ও আমাকে স্লেজিং করেছিল মাঠে। আমি খুব অবাক হয়েছি, ভাবতেই পারিনি যে একটা মাস ওর সাথে এত ভালো সময় কাটালাম কিন্তু মাঠে এসে সে আমারে স্লেজিং করে- ঠিক এভাবেই বলছিলেন ইমরুল।

তবে এর পর থেকে ইমরুলের সঙ্গে আর এমন হয়নি। তিনি বলেন, তারপর থেকে বিরাট কোহলির সাথে আমার যতবার দেখা হয়েছে কোনো খারাপ ব্যবহার করেনি। ফতুল্লাতে যখন খেলা হয়, টেস্ট ম্যাচ প্রায় সবাইকেই ও স্লেজিং করেছে আমাকে একটা কথাও বলেনি। আমরা যে ভারতে টেস্ট সিরিজ খেলতে গেলাম; সে কিন্তু কমবেশি সবাইকেই গা’লিগালাজ করেছে, আমাকে একটা কথাও বলেনি।

তবে মাঠের বাইরের কোহলিকে অ’সাধারণ বলে ইমরুল বলেন, আসলে ও ওর লেভেলে, ও তো লিজেন্ড প্লেয়ার। ওর সাথে তো আমাদের হিসাব করলে হবে না। একটা জিনিস ভালো লাগে কি; এত বড় প্লেয়ার হলেও মনে রাখে এখনো। দেখা হলে নিজে থেকে কথা বলে। মাঠের বাইরে বিরাট কোহলি কিন্তু আমাদের দেশের ক্রিকেটারদের সাথে খারাপ আচরণ করেনি। মাঠের বাইরে আমি বলবো, সে আসলেই অ’সাধারণ একজন মানুষ।

শেয়ার করুন !
  • 11
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply