‘এবার থামুন’

0

সময় এখন ডেস্ক:

পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, যারা বের হয়ে গেছেন, যেখানে চেকপোস্ট আছে সেখান থেকে ফিরে আসেন। দয়া করে ফিরে আসেন। প্রয়োজনে ফেরিঘাট থেকে ফিরে আসার ব্যবস্থা পুলিশ করবে। তবুও বলব- আপনারা বাড়ি যাবেন না।

মঙ্গলবার রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনস মিলনায়তনে পবিত্র ঈদুল ফিতর ও করোনা নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অনুরোধ জানান।

বেনজীর আহমেদ বলেন, এবার ক্রান্তিকালে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে যাচ্ছি। মানুষ সরকারি নিষে’ধাজ্ঞা উ’পেক্ষা করে হেঁটেই অলিগলি দিয়ে গ্রামে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। এর ফলে সং’ক্রমণের ঝুঁ’কি বাড়ছে। আমাদের মনে রাখতে হবে, বেঁচে থাকলে অনেকবার পরিবারের সঙ্গে ঈদ করা যাবে। আমরা এমন কোনো আচারণ করব না, যার ফলশ্রুতিতে এটাই যেন শেষ ঈদ না হয়ে যায়। কোনোভাবেই যেন শেষ ঈদযাত্রা না হয়।

তিনি বলেন, এ মুহূর্তে ফেরিঘাটে ৩ নম্বর সিগন্যাল রয়েছে। তারপরও মানুষ চোরাইপথে ট্রলারে করে জীবনের ঝুঁ’কি নিয়ে পার হওয়ার চেষ্টা করছেন। এ বিষয়ে নৌপুলিশকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এটা কোনো জুজুর ভ’য় দেখানো হচ্ছে না। তাছাড়া আমি বাড়ি যাব, অন্য সবাই থেকে যাক- এই মানসিকতা পরিহার করতে হবে। সবাইকে অনুরোধ করব, যেখানে আছেন সেখানেই থাকেন। এটা আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ, আপনার পরিবারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কারণ মৃ’ত্যুর তালিকায় আপনি হবেন একটি মাত্র সংখ্যা। কিন্তু আপনার পরিবারের কাছে আপনি পুরো পৃথিবী। যে কোনো দায়িত্বহীন আচারণ কিন্তু পুরো জাতির জন্য বিপ’জ্জনক। দেশটাকে ঝুঁ’কির মধ্যে ফেলে দেবেন না। কেননা মৃ’ত্যুর দূত হয়ে পরিবার অথবা গ্রামবাসীর কছে উপস্থিত হতে পারেন আপনি।

আইজিপি বলেন, খোলা জায়গার পরিবর্তে মসজিদে ঈদের জামায়াতের আয়োজন করা হবে। ঈদের দিন দয়া করে কোনো জায়গায় আনন্দ ফুর্তি করার জন্য বাড়ি থেকে বের হবেন না। স্থান দর্শনের জন্যও বের হবেন না। ঈদুল আজহার আগে যদি আমরা করোনামুক্ত হতে পারি, তা হলে বিশ্বের সব মানুষ একসঙ্গে ঈদুল আজহা উদযাপন করতে পারব।

শক্তি প্রয়োগের কোনো পরিকল্পনা রয়েছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, সরকার দেশের মানুষের জন্য যা ভালো সেটা করছে। দেশে অনেক প্রান্তিক ও খেটে খাওয়া মানুষ রয়েছেন। সরকারকে সার্বিক দিক বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। অনেক দেশ মানুষকে ঘরে রাখতে শক্তি প্রয়োগ করলেও আমরা কোনো শক্তি প্রয়োগ করিনি।

তথ্য প্রকাশের অভিযোগে গ্রেপ্তার ও হয়রা’নি প্রসঙ্গে বেনজীর আহমেদ বলেন, গুজব ছড়ানো অপরাধ। মিথ্যা তথ্য দিয়ে দেশবিরো’ধী অবস্থান নিলে কেউ তা মেনে নেবে না। জনগণকে বিভ্রা’ন্ত করার অধিকার কারও নেই। করলে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে। আইসিটি অ্যাক্টে গ্রেপ্তারের আগে ওই ব্যক্তির প্রোফাইল যাচাই-বাছাই করে নেয় পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) মাঈনুর রহমান চৌধুরী, বিশেষ শাখার অতিরিক্ত আইজিপি মীর শহীদুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার শফিকুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

শেয়ার করুন !
  • 46
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!