প্রধানমন্ত্রীর ৫টি বিশেষ নির্দেশনা জানিয়ে দিলেন কাদের

0

সময় এখন ডেস্ক:

জীবন ও জীবিকার প্রশ্নে তুলে নেয়া হয়েছে লকডাউন। স্বাস্থ‌্যবিধি মেনে চলছে সব ধরনের কার্যক্রম। এবার আরও স্বাস্থ‌্য সচেতনতা বৃদ্ধিতে জনগণ, দলীয় নেতাকর্মী ও জনপ্রতিনিধিদের ৫টি নির্দেশনা প্রতিপালনের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তাঁর এই নির্দেশনার কথা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বুধবার রাজধানীতে সংসদ ভবন এলাকায় নিজের সরকারি বাসভবন থেকে মেট্রোরেল প্রকল্পের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এই নির্দেশনার কথা জানান তিনি।

নির্দেশনাগুলো হলো:

১. অফিস আদালত, দোকানপাট, ব‌্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ সর্বত্র স্বাস্থ‌্যবিধি মেনে চলা এবং সং’ক্রমণ রো’ধের কার্যপদ্ধতি অনুসরণ।
২. গণপরিবহনে চলাচলের সময় স্বাস্থ‌্যবিধি মেনে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা।
৩. জনসম্মুখে সব সময় মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ‌্যবিভাগের নির্দেশনা মেনে চলা।
৪. দলীয় নেতাকর্মীরা নিজেরা স্বাস্থ‌্যবিধি মেনে চলবেন এবং তা প্রতিপালনে জনগণকে সচেতন করবেন।

৫. স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের করোনা সং’ক্রমণ প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে হবে। জনপ্রতিনিধিরা অঞ্চলভিত্তিক তদারকির মাধ‌্যমে সং’ক্রমণ রো’ধের পাশাপাশি স্বাস্থ‌্যসেবা নিশ্চিতকরণেও ভূমিকা রাখবেন। আপদকালীন সময়ে স্বাস্থ‌্যবিধি মেনে অ’সহায় দু’স্থ মানুষের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবেন।

করোনা মোকাবেলায় সরকারের ত্রাণ সহায়তা অ’ব্যাহত

করোনা ভাইরাসের মত দুর্যোগে সারাদেশের সাধারণ মানুষের ক’ষ্ট দূর করতে ত্রাণ সহায়তা জারি রেখেছে সরকার। এ পর্যন্ত সারাদেশে প্রায় দেড় কোটি পরিবারের সোয়া ৬ কোটি মানুষকে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে সরকার।

গতকাল মঙ্গলবার এক তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, ৬৪ জেলা প্রশাসন থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ১ জুন পর্যন্ত সারাদেশে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে প্রায় ১ লাখ ৯২ হাজার মেট্রিক টন। এতে উপকারভোগী পরিবার সংখ্যা ১ কোটি ৪১ লাখ ১৮ হাজার ৪৮৮টি এবং উপকারভোগী লোকসংখ্যা ৬ কোটি ২৩ লাখ ১৪ হাজার ৪০৯ জন। নগদ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে প্রায় ১১০ কোটি টাকা।

এর মধ্যে নগদ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৮৬ কোটি ৪৩ লাখ ৭২ হাজার টাকা এবং বিতরণ করা হয়েছে প্রায় ৭৫ কোটি ৭১ লাখ ১৮ হাজার টাকা। এতে উপকারভোগীর পরিবার সংখ্যা ৮৪ লাখ ৭ হাজার ১০৭টি এবং উপকারভোগী লোক সংখ্যা ৩ কোটি ৭৬ লাখ ১৫ হাজার ৭৯ জন।

শিশু খাদ্য সহায়ক হিসেবে বরাদ্দ ২৩ কোটি ৯৪ লাক্ষ টাকা এবং এ পর্যন্ত বিতরণ করা হয়েছে প্রায় ১৯ কোটি ৩১ লাখ ৫৩ হাজার টাকা। এতে উপকারভোগী পরিবার সংখ্যা ৬ লাখ ১০ হাজার ২৫১টি এবং লোক সংখ্যা ১২ লাখ ৮৪ হাজার ২০০ জন।

শেয়ার করুন !
  • 46
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!