সময় জমানোর এক অসাধারণ মানবিক প্রকল্প ‘টাইম ব্যাংক’

0

বিশ্ব বিচিত্রা ডেস্ক:

ব্যাংক সম্পর্কে আমরা একটা বিষয় বুঝি, যেখানে টাকা জমা রাখা হয়, আবার তুলে নেয়া যায়। কিন্তু টাইম ব্যাংক? অনেকের কাছে কনসেপ্টটি নতুন মনে হতে পারে। ইন্টারনেটের কল্যাণে কেউ কেউ হয়ত জেনে থাকবেন। তবে যাদের কাছে নতুন তারা একটি চমৎকার বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন। জেনে নিন টাইম ব্যাংক কী বা কীভাবে এটি কাজ করে।

সম্প্রতি সুইজারল্যান্ডে পাঠ্যরত একজন ছাত্র টাইম ব্যাংক নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়েছেন। সে পোস্টটিতে জানানো হয়েছে টাইম ব্যাংক কী ও কেনো? কীভাবে এটি কাজ করে:

সময় এখন এর পাঠকদের জন্য সেই পোস্টটির অনুবাদ নিচে তুলে ধরা হলো (ছাত্রের ভাষ্যে):

সুইজারল্যান্ডে পড়াশোনা করার সময় আমি স্কুলের নিকট একটি বাসা ভাড়া করে থাকতাম। ৬৭ বছর বয়সী বাড়ির মালিক ক্রিস্টিনা ছিলেন একা মানুষ। তিনি অবসর নেয়ার আগে একটি মাধ্যমিক স্কুলে পড়াতেন।

সুইজারল্যান্ডের পেনশন বেশ ভালোই। শেষ বয়সে অন্ন বস্ত্র বাসস্থানের কোনো অসুবিধাই নেই। কিন্তু তা স্বত্ত্বেও ক্রিস্টিনা ৮৭ বছর বয়সী একজন সিঙ্গেল পুরুষের দেখাশোনা করার কাজ করতেন।

একদিন আমি জিজ্ঞেস করলাম, তুমি কি টাকার জন্য কাজ কর? তার জবাব শুনে আমি বিস্মিত হয়ে গেলাম। তিনি বললেন, কাজের বিনিময়ে আমি টাকা নিইনা। যতটুকু সময় কাজ করি সেটা টাইম ব্যাংকে জমা করে দিই। যখন বুড়ো বয়সে নড়তে চড়তে পারবো না, তখন আমি ওই জমাকৃত সময় তুলে নেব।

আমি টাইম ব্যাংক সম্বন্ধে এই প্রথম শুনলাম। আগ্রহী হয়ে ক্রিস্টিনাকে প্রশ্ন করে অনেককিছু জানতে পারলাম।

টাইম ব্যাংক মূলত সুইস ফেডারেল মন্ত্রণালয় উদ্ভাবিত একটি অবসরকালীন ভাতা প্রকল্প। এতে কমবয়সীরা কর্মক্ষম অবস্থায় বয়স্ক মানুষদের যতটা সময় ধরে সেবা প্রদান করবেন, সেই সময়টা ব্যাংকে জমা থাকবে। যখন তারা জীবনের যে কোন সময় অসুস্থ বা অ’ক্ষম হয়ে পড়বেন সেই সঞ্চিত সময় ব্যাংক থেকে তুলতে পারবেন। অর্থাৎ ব্যাংকের পক্ষ থেকে নির্ধারিত কেউ এসে তাকে নিঃস্বার্থভাবে সেবা প্রদান করবেন।

এই প্রকল্পে আবেদনকারীরা হবেন স্বাস্থ্যবান, কথাবার্তায় কুশলী এবং হৃদয়বান। তাদের বয়স্ক মানুষের প্রয়োজনে সেবা প্রদানের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। তাদের সেবায় ব্যয় করা সময়গুলো সোশ্যাল সিকিউরিটি সিস্টেমের পারসোনাল টাইম খাতায় জমা থাকবে।

ক্রিস্টিনা সপ্তাহে ২ দিন ২ ঘণ্টা করে সেবা করতে বের হতেন। এই সময় তিনি বয়স্ক মানুষের জন্য বাজার করা, ঘর পরিষ্কার করা, তাকে রোদে নিয়ে যাওয়া, গল্প করা ইত্যাদি করতেন।

চুক্তি অনুযায়ী এভাবে ১ বছর সেবা প্রদানের পর টাইম ব্যাংক তার প্রদত্ত সেবা হিসাব করে পাশবই এর মত একটি টাইম ব্যাংক কার্ড প্রদান করবে।

যখন সেবা-প্রদানকারীর তার নিজের সেবার জন্য কাউকে প্রয়োজন হবে তখন তিনি তার কাছে রক্ষিত টাইম ব্যাংক কার্ডটি ব্যবহার করে টাইম ও টাইম ইন্টারেস্ট তোলার অভিপ্রায় জানাবেন। টাইম ব্যাংক তখন অন্য একজন ভলান্টিয়ারকে প্রার্থীর বাড়িতে বা হাসপাতালে সেবা প্রদানের দায়িত্ব দেবেন।

একদিন আমি তখন স্কুলে, ক্রিস্টিনা ফোনে জানালেন তিনি টুলে উঠে জানালার কাঁচ পরিষ্কার করতে গিয়ে টুল উল্টে পড়ে গেছেন। আমি ছুটি নিয়ে তাড়াতাড়ি বাড়ি এসে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলাম। বেশকিছু দিন শয্যাশায়ী থাকার দরকার।

আমি যখন ওনাকে সেবা প্রদানের জন্য স্কুলে ছুটির আবেদন করার প্রস্তুতি নিচ্ছি, তিনি বললেন আমার চাপ নেওয়ার কোন দরকার নেই কারণ তিনি ইতোমধ্যে টাইম ব্যাংকে সময় তুলে নেয়ার আবেদনপত্র জমা করে দিয়েছেন।

অবাক হয়ে দেখলাম টাইম ব্যাংক ২ ঘণ্টার মধ্যেই ক্রিস্টিনার দেখভালের জন্য একজন সেবা-কর্মীকে পাঠিয়ে দিয়েছেন। পরের ১ মাস ধরে তিনি প্রতিদিন সেবা ছাড়াও ক্রিস্টিনার সঙ্গে গল্প করা এবং তার জন্য পুষ্টিকর খাবার বানানো এইসব করতেন।

তার আন্তরিক সেবায় ক্রিস্টিনা সেরে উঠে আবার পূর্বের কর্মস্থলে যোগদান করলেন। তিনি বললেন যতদিন পারবো, তিনি আরও কিছু সময় টাইম ব্যাংকে সময় জমা করে ফেলতে চান।

টাইম ব্যাংক ব্যবহার করে সুইজারল্যান্ডে বার্ধক্যে সেবা প্রদান খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছে। তাতে দেশের অবসরকালীন খরচ কমার সাথে সাথে অনেক সামাজিক সমস্যার সমাধান হয়েছে।

এক জরিপ থেকে জানা গেছে অর্ধেকের বেশি সুইস নাগরিক এই ধরনের বার্ধক্যকালীন সেবায় অংশগ্রহণ করার পক্ষে মত দিয়েছেন।

সুইস সরকার আইন করে এই টাইম ব্যাংকে অবসরকালীন প্রকল্পকে অনুমোদন দিয়েছেন। এই ধরনের সুন্দর প্রকল্প আমাদের দেশের মত উন্নতিশীল দেশে বিশেষভাবে কার্যকর হতে পারে।

শেয়ার করুন !
  • 45
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!