মাস্ককাণ্ড: অবশেষে তদন্তে নামলো দুদক

0

সময় এখন ডেস্ক:

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস সং’ক্রমণের শুরু থেকে এন-৯৫ মাস্ক নিয়ে কেলে’ঙ্কারি শুরু হয়েছিল। যা ধামাচাপা দিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সব চেষ্টাই করেছে। তারপরও শেষ রক্ষা হলো না। অবশেষে মাস্ককাণ্ড নিয়ে অনুসন্ধান শুরু করেছে দুর্নীতি দম’ন কমিশন। দুদক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

উল্লেখ্য, করোনা সং’ক্রমণের শুরুতেই চিকিৎসকদের সুরক্ষার কথা বলা হয়। এ সময় চিকিৎসকরা তাদের সুরক্ষা সামগ্রী চান। তখন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর তড়িঘড়ি করে জেএমআই- নামে জামায়াতের একটি প্রতিষ্ঠানকে টেন্ডার না করেই সরাসরি মাস্ক কেনার দায়িত্ব দেয়। কেন টেন্ডার ছাড়াই এ দায়িত্ব দেওয়া হলো সেটি রহস্যময় বটে।

উল্লেখ্য, এন-৯৫ মাস্ক বাংলাদেশে তৈরী হয় না। এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তৈরী হয়। জেএমআই কোনো এলসি বা আমদানী না করেই তারা তাদের গাজীপুরের ফ্যাক্টরিতে অনুরূপ নকল মাস্ক উৎপাদন করেছে বলে তদন্তে জানা গেছে। সেই নকল মাস্কগুলো এন-৯৫ মুদ্রিত প্যাকেটে ভরে তারা বিভিন্ন হাসপাতালে সরবারহ করে।

এর মধ্যে মুগদা হাসপাতালের পক্ষ থেকে এই মাস্ক যে আসল মাস্ক না- তা জানিয়ে আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ জানানো হয়। এরপর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও জেএমআই এর আপোস রফায় ঐ মাস্কগুলো প্র’ত্যাহার করা হয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর তখন সাফাই গায় জেএমআই-এর পক্ষে। জানায়- ভুলক্রমে এসব মাস্ক এন-৯৫ এর প্যাকেটে দেয়া হয়েছিল! মুগদা হাসপাতালের মহাপরিচালককে বদিল করা হয় একই সময়, যিনি নকল মাস্ক নিয়ে কথা বলেছিলেন।

এদিকে বাদ সাধে মহানগর হাসপাতাল, সেখানে একই নকল মাস্ক সরবরাহ করা হলে তা প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসে। প্রধানমন্ত্রী একটি ভিডিও কনফারেন্সে প্রকাশে এন-৯৫ মাস্ক নিয়ে অ’নিয়মের কথা জানান। তিনি বলেন, ‘মোড়কে লেখা থাকলেও সেটি আসলে এন-৯৫ মাস্ক না।’ প্রধানমন্ত্রী এ-ও বলেন, যখন কোন সাপ্লায়ার সাপ্লাই দিচ্ছে তখনর যাচাই বাছাই করা উচিত।

এরপর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিজেদের পিঠ বাঁচানোর সব চেষ্টাই করেছিল। ৩ দিন ধরে তারা এন-৯৫ মাস্ক নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখে। অবশেষে চাপে পড়ে তারা একটি দায়সারা তদন্ত কমিটি গঠন করে। এক অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে ওই তদন্ত কমিটির এখন পর‌্যন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করতে পারেনি।

বিষয়টি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং অধিদপ্তর বারবার ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেছে। এরই বাস্তবতায় এখন দুদক তদন্তে নেমেছে।

শেয়ার করুন !
  • 179
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!