ইমরানের জনপ্রিয়তা তলানিতে, ক্ষমতায় বসার অপেক্ষায় সেনাবাহিনী!

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ফের সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে পাকিস্থান! ইমরান এখনও প্রধানমন্ত্রীর পদে আছেন বটে, কলমে দেশ চালাচ্ছে পাকিস্থানের সেনাবাহিনী। গত কয়েক মাসের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সরকারি সিদ্ধান্ত এমনই ইঙ্গিত করছে।

ইমরানকে ক্ষমতায় রেখেই সরকারের উপরে ছড়ি ঘোরাচ্ছে পাকিস্থানি সেনাবাহিনী। মূলতঃ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ নীতি নির্ধারণের ক্ষমতা নিজেদেরে হাতে তুলে নিয়েছে তারা। বর্তমানে অন্তত এক ডজন গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ভূমিকা পালন করছেন সেনাবাহিনীর কর্মরত এবং অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা, বিদ্যুৎ নিয়ামক সংস্থা এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ হেল্থ। এই ৩টি প্রতিষ্ঠানের হর্তাকর্তার ভূমিকায় এখন সেনাবাহিনীর মনোনীত অফিসাররা। এর মধ্যে করোনা মোকাবেলায় মুখ্য ভূমিকা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ হেল্থ নিচ্ছে। গত অন্তত ২ মাসের মধ্যে ৩টি গুরুত্বপূর্ণ সরকরি শীর্ষপদে সেনাবাহিনীর লোকজনকে বসিয়েছে ইমরান খান সরকার।

পাকিস্থান পার্লামেন্টের ৪৬ শতাংশ আসন ইমরান খানের দল পিটিআই এর দখ’লে। ক্ষমতা ধরে রাখতে বেশ কয়েকটি ছোট দলের সঙ্গে জোট করতে বাধ্য হয়েছে তারা। এই পরিস্থিতিতে সরকারে টিকে থাকার জন্য ইমরান খানের পক্ষে সেনাবাহিনীর সহায়তা একান্ত প্রয়োজন। এদিকে সময়টা মোটেই ভালো যাচ্ছে না ক্রিকেট মাঠ থেকে রাজনীতির মাঠে পা দেওয়া ইমরানের জন্য।

অর্থনৈতিক স্থ’বিরতা এবং দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির জেরে নাগরিকরা ক্ষু’ব্ধ। সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর একাধিক ঘনিষ্ঠ সহযোগীর বিরু’দ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগ। সব কিছু মিলিয়ে সাধারণ মানুষকে ‘নতুন পাকিস্থান’ গড়ার স্বপ্ন দেখিয়ে পাকিস্থানের ক্ষমতায় বসা ইমরানের জনপ্রিয়তা তলানিতে। এই পরিস্থিতিতে ফের সক্রিয়তা বেড়েছে পাকিস্থান সেনাবাহিনীর। একের পর এক কর্মকর্তাকে সরকারি উচ্চ পদে বসিয়ে অ’সামরিক এই সরকারের উপরে নিয়ন্ত্রণ আরও শক্ত করছে তারা।

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনার গ্রাস থেকে মুক্ত নয় পাকিস্থান। সে দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রা’ন্তের সংখ্যা। পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারকে সহায়তা করছে সেনাবাহিনী। এখানেই সীমাবদ্ধ নেই তাদের ভূমিকা। করোনা নিয়ে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সম্প্রচারিত সাংবাদিক বৈঠকে দেখা গিয়েছে ইউনিফর্ম পরা পাকি সেনাকর্তাদের। এর মধ্যে চলতি সরকারের উপরে সেনাবাহিনীর প্রভাব বিস্তারের লক্ষণ দেখতে পারছেন বিশেষজ্ঞরা।

পাকিস্থানে সেনাবাহিনীর ক্ষমতা প্রশ্নাতীত। দেশের ৭ দশকের ইতিহাসের একটা দীর্ঘ সময় সেনা শাসনে থেকেছে পাকিস্থান। ফের সরকারি নীতিনির্ধারণে সেনাবাহিনীর এই ধরনের সক্রিয়তায় চর্চা শুরু হয়েছে পাকি রাজনীতির গভীরে।

শেয়ার করুন !
  • 143
  •  
  •  
  • 0
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!