বিচারের দাবিতে হত’ভাগ্য ভ্যানচালক বাবা একা রাস্তায়

0

রাজশাহী প্রতিনিধি:

রাজশাহীর পুঠিয়ায় দুলাভাইয়ের দ্বারা ধ’র্ষিত ইভা খাতুন (১২) বিচার না পেয়ে লজ্জা ও অভিমানে গলায় ফাঁ’স দেয়। এ ঘটনায় থানায় মামলার ২ মাস পেরিয়ে গেলেও আসামিদের আটক করতে পারেনি পুলিশ। অবশেষে বিচারের দাবি নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন ইভার হত’ভাগ্য বাবা।

বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা পরিষদের সামনে ইভা খাতুনের বাবা ভ্যানচালক সেলিম হোসেন বিচারের আশায় ব্যানার নিয়ে একাই দাঁড়িয়ে পড়েন।

সেলিম হোসেন বলেন, আমার মেয়ে পুঠিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল। ২ মাস পেরিয়ে গেছে, বিচারের অপেক্ষায় ঘুরছি। শুনছি আসামি প্রকাশ্যে এলাকায় ঘুরছে। কিন্তু পুলিশ তাকে খুঁজে পাচ্ছেন না। আমি ভ্যানচালক গরীব মানুষ, হয়তো সঠিক বিচার পাবো না। তাই নিজেই বিচারের দাবি নিয়ে রাস্তায় নেমেছি।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম বলেন, আসামিদের আটক করতে আমরা বিভিন্নভাবে চেষ্টা করছি। আর ওই পরিবারকেও বলা হয়েছে আসামিদের কোনো সন্ধান পেলে আমাদের জানাতে।

ইভার বাবা বলেন, এ বছরের জানুয়ারি মাসে উপজেলার হলহোলিয়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে এখলাস আলীর সঙ্গে তার বড় মেয়ের বিয়ে দেন। মার্চের শেষে ছোট মেয়ে ইভা তার বোনের বাড়ি বেড়াতে যায়। সেখানে এক সপ্তাহ থেকে বাড়ি ফিরে কারও সঙ্গে কথা বলত না। পরে সে মাকে জানান, দুলাভাই জ্যুসের মধ্যে ওষুধ মিশিয়ে তার সাথে খারাপ কাজ করেছে। এ ঘটনার পর বড় মেয়েকেও জামাইয়ের বাড়ি থেকে নিয়ে আসেন সেলিম।

তিনি বলেন, জামাইয়ের পরিবারকে জানিয়েও বিচার পাইনি। গত ৯ এপ্রিল সকালে আমি ভ্যান চালাতে রাজশাহী শহরে যাই। সেখানেই ফোনে খবর পাই ইভা ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে ফাঁ’স দেয়।

এ ঘটনায় সেলিম বাদী হয়ে এখলাসসহ তার পিতা ও মাতাকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। পুলিশ ঘটনার দিন রাতে এখলাসের মা জরিনা বেগমকে (৪৮) আটক করলেও অন্যরা এখনও পলাতক।

পুলিশ সুপার মো. শহীদুল্লাহ বলেন, শুনেছি ইভার বাবা বিচারের দাবিতে একাই রাস্তায় নেমেছেন। আমরা বিষয়টি সিরিয়াসলি নিয়েছি। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারে সব ধরনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইভার বাবা যাতে ন্যায্য বিচার পান, আমরা তা নিশ্চিত করব।

শেয়ার করুন !
  • 258
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!