কক্সবাজারের হাতিটিকে দেখতে উৎসাহী জনতার ভিড়!

0

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের টেকনাফের পাহাড়ি এলাকায় বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইনের সঙ্গে শুঁড় আটকে একটি বন্য হাতির মৃ’ত্যু হয়েছে।

আজ শুক্রবার ভোরে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম পানখালীর খণ্ডা কাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের টেকনাফ রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমদ।

ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি অবলোকন করে আসা বন্যপ্রাণী বিষয়ক গবেষক ড. শীতল কুমার নাথ বলেন, অ’পরিকল্পিত বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইন হাতি চলাচলের জায়গায় থাকার কারণে খাদ্য অন্বেষণে আসা ৪০-৫০ বছর বয়সী একটি হাতি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মা’রা যায়। হাতিটির শরীরে অসুস্থতা কিংবা অন্য কোনো ধরনের আঘা’তের চিহ্ন ছিল না।

স্থানীয় লোকজনের বরাত দিয়ে তিনি আরও জানান, একটি বন্য হাতির ডাকা বিকট শব্দে এলাকাবাসীর ঘুম ভাঙে। ভোরের আলো ফুটলে স্থানীয়রা শব্দের উৎসস্থলে গিয়ে দেখেন বৈদ্যুতিক তারের সঙ্গে হাতিটির শুঁড় আটকে আছে। তাদের ধারণা খাবারের সন্ধানে পাহাড় থেকে নেমে আসা বন্য হাতি বৈদ্যুতিক তারের সংযোগ লাইনের স্পর্শে বিদ্যুতায়িত হয়ে মা’রা গেছে। খবরটি ছড়িয়ে পড়ার পর ভোর থেকে শত শত মানুষ হাতিটি দেখার জন্য ভিড় জমায়।

টেকনাফ রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমদ গণমাধ্যমকে বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়েই হাতিটি মা’রা গেছে। হাতিটির মাথার ওপরের দিকে একটি ক্ষ’তচিহ্ন ছাড়া শরীরের আর কোথাও কোনো আঘা’তের চিহ্ন নেই।

রেঞ্জ কর্মকর্তা অত্যন্ত ক্ষু’ব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, নিশ্চিতভাবেই এটা এক ধরনের হ’ত্যাকাণ্ড। কারণ পাহাড়ি এলাকায় বন্য হাতি চলাচলের রাস্তায় এত নিচ দিয়ে বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইনের তার টানা হয়েছে যে, শুধু হাতি কেন- যে কেউই এতে মা’রা পড়তে পারে।

এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করে বন কর্মকর্তা আশিক আহমদ বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পরামর্শে ময়নাতদন্ত সম্পন্নের পর হাতিটাকে মাটি চাপা দেয়া হবে।

শেয়ার করুন !
  • 41
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!