লকডাউন নিয়ে জনমনে সংশয় তৈরি হয়েছে: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ

0

বিশেষ প্রতিবেদন:

প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এবং ইউজিসি অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেছেন, করোনা মোকাবেলার ক্ষেত্রে প্রশাসনের সমন্বয়হীনতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এই সমন্বয়হীনতার কারণে লকডাউন নিয়ে জনগণের মধ্যে সংশয় সৃষ্টি হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় লকডাউন দেবে, নাকি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দেবে, নাকি আবার মেয়ররা লকডাউন দেবেন এ নিয়ে সুস্পষ্ট কোনো ধারণা পাচ্ছে না জনগণ। এ ধরনের সমন্বয়হীনতা থাকা উচিৎ নয়।

তিনি বলেন, আজ সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষ মা’রা গেছেন। এভাবে যদি চলতে থাকে, বা আরও ৫/৬ দিন যদি এ রকম পরিস্থিতি থাকে তাহলে ছোট ছোট লকডাউনে কোনো কাজ হবে না। জোনভিত্তিক লকডাউন করতে হবে। এই লকডাউনের আগে সবার সাথে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। সেখানে প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, মসজিদের ইমাম, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিকসহ সর্বস্তরের মানুষকে নিয়ে লকডাউন করতে হবে।

ডা. আব্দুল্লাহ বলেন, এ ধরনের লকডাউন হঠাৎ করে দিলেও লাভ হবে না। লকডাউন করলে মানুষকে আগে থেকে জানিয়ে দিতে হবে যেন মানুষ প্রস্তুতি নিতে পারে। বিশেষ করে গরীব মানুষের যেন প্রতিদিন ৩ বেলার খাবার ওই লকডাউনের সময় থাকে এটা নিশ্চিত করতে হবে।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন এই মেডিসিন বিশেষজ্ঞ বলেন, বাংলাদেশে যেভাবে করোনা সং’ক্রমণ বাড়ছে, এটা যদি আরও কিছুদিন এভাবে বাড়তে থাকে, তাহলে করোনা মোকাবেলার জন্য কঠোর হতে হবে।

তিনি বলেন, করোনা মোকাবেলার সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো আমাদের সচেতনতা। কিন্তু এখন পর্যন্ত আমি জনগণের মধ্যে সচেতনতার অভাব লক্ষ্য করছি। মানুষ অকারণে এদিক-ওদিক যাচ্ছে, স্বাস্থ্যবিধি মানছে না, অনেকে মাস্ক ব্যবহার করছে না। এর ফলে আক্রা’ন্তের হার অনেক বেড়ে যাচ্ছে।

এই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বলেন, করোনায় আক্রা’ন্তের হার বাড়লেই মৃত্যুর হার বাড়বে। বয়স্ক যারা ক্যান্সার, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, কিডনি রোগসহ দীর্ঘমেয়াদী জটিল রোগে ভুগছেন, তাদের জন্য শ’ঙ্কা বেড়ে যাবে। এমন রোগীদের সুস্থ হয়ে ওঠার হার খুবই কম। এজন্য এখন আমাদের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ, করোনা সং’ক্রমণ কমাতে হবে। এজন্য আমাদের সচেতন হতে হবে। লকডাউনে কঠোর হতে হবে। পরিস্থিতি খারাপ হলে বৃহৎ পরিসরে লকডাউনের চিন্তা ভাবনা করতে হতে পারে।

শেয়ার করুন !
  • 51
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!