‘মাস্ককাণ্ডে আমার নেতা জড়িত, কর্মী হয়ে তার বিপক্ষে কীভাবে বলি?’

0

মুক্তমঞ্চ ডেস্ক:

ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেইফটি, রাইটস অ্যান্ড রেসপনসিবিলিটিজ (এফডিএসআর) এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল হাসনাৎ মিল্টন এর ফেসবুক থেকে-

গত ১৩ মে এক সাক্ষাৎকারে স্বাস্থ্যখাতে নিম্নমানের পিপিই ক্রয়সহ নানা দুর্নীতি নিয়ে কথা বলার পর থেকেই একটি মহল আমার উপর ক্ষু’ব্ধ হয়ে আছে। সিডনির হুন্ডি সিন্ডিকেট বলা শুরু করলো, ঢাকা থেকে এক মন্ত্রী নাকি ফোন করে আমার এই সাক্ষাৎকারের ব্যাপারে তীব্র ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছেন। শুনে আমি একটু অবাক হলাম।

যদ্দুর জানি, আমাদের দেশের মন্ত্রীরা খুব ব্যস্ত থাকেন। আমার মত তু’চ্ছ মানুষের কোন ব্যাপারে তাদের আগ্রহ থাকার কথা না। তাদের সেই সময়ই বা কোথায়? পরে ঢাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেল, পুরো ব্যাপারটাই ভুয়া। এরকম কোন ঘটনাই ঘটেনি। পুরোটাই সিডনির ল্যাকেম্বাস্থ হুন্ডি সিন্ডিকেটের অপ’প্রচার। নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য তারা নাকি এরকম প্রায়ই এমপি-মন্ত্রীদের নাম ভাঙিয়ে থাকেন।

তবে এবার ভাঙাতে গিয়ে একটু ধরা খেয়েছেন আর কী! করোনাকালে হুন্ডি ব্যবসায়ীদের দিনকাল ভাল যাচ্ছে না। তাছাড়া বিদেশ থেকে টাকা পাঠালে সরকার যেহেতু ২% প্রণোদনা দিচ্ছে, তাই মানুষজন আজকাল হুন্ডি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে।

কাহিনীর এখানেই শেষ নয়। আওয়ামী লীগের এক কেন্দ্রীয় নেতা বিদেশের এক লাইভ অনলাইন টক শো’তে যোগ দিয়ে অনুষ্ঠান শুরুর আগে ক্ষো’ভ প্রকাশ করে বলেছেন, এরকম লেখার জন্য নাকি আমাকে দল থেকে বহি’ষ্কার করা উচিত। এটা যে লেখা না, স্রেফ একটা সাক্ষাৎকার ছিল সেটা নেতা কেন যে বুঝতে পারলেন না! কয়েকদিন আগে পত্রিকায় দেখলাম, মাস্ক কেলে’ঙ্কারিতে জড়িত থাকার কারণে ওই নেতার নামে মামলা হয়েছে।

এতক্ষণে বুঝতে পারলাম, কেন নেতা আমার বহি’ষ্কার চেয়েছিলেন। আসলে তো ঠিকই। যেখানে আমার নেতা স্বয়ং জড়িত, সেখানে দলের সামান্য একজন কর্মী হয়ে কোন স্প’র্ধায় আমি মাস্ক কেলে’ঙ্কারির বিপক্ষে বলি?

খুব টেনশনে আছি। দলটা বুঝি আর করা হবে না। স্যরি নেতা। আমার বড্ড ভুল হয়ে গেছে।

লেখক: অধ্যাপক ড. আবুল হাসনাৎ মিল্টন
পরিচয়: চেয়ারম্যান, ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেইফটি, রাইটস অ্যান্ড রেসপনসিবিলিটিজ (এফডিএসআর)।

শেয়ার করুন !
  • 122
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!