প্রধানমন্ত্রী বিরক্ত: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে কি পরিবর্তন আসছে?

0

বিশেষ প্রতিবেদন:

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকাণ্ডে ক্ষু’ব্ধ হয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। করোনা মোকাবেলার শুরু থেকেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তর দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণ করছেন এবং একের পর এক ভুল পদক্ষেপ নিচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী করোনা সং’কটকালীন সময়ে তাদের ব্যর্থতা, দায়িত্বজ্ঞানহীনতা এবং ভুলগুলোকে শুধরে সঠিক পথে আনার প্রাণান্ত চেষ্টা করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে একের পর এক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, বারবার তাগাদাও দেওয়া হয়েছে। সেই সাথে প্রধানমন্ত্রী কাউকে বাদ না দিয়ে বরং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বর্তমান টিম দিয়েই করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে চেয়েছেন। কিন্তু একের পর এক ভুল পদক্ষেপ এবং কিছু কিছু ইচ্ছাকৃত ভ্রা’ন্তি সরকারের মধ্যে তীব্র ক্ষো’ভ এবং অ’সন্তোষ সৃষ্টি করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, প্রধানমন্ত্রী নিজেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমে অ’সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। জানা যায়, আজ টেলিফোনে আওয়ামী লীগ সভাপতির সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের দীর্ঘক্ষণ আলাপ হয়। এই আলাপচারিতায় ওবায়দুল কাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কিছু কার্যক্রমের ব্যাপারে অ’সন্তোষ আর দলের নেতাকর্মীদের হতা’শার কথা প্রধানমন্ত্রীকে জানান।

একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র বলছে, প্রধানমন্ত্রী নিজেও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমে সন্তুষ্ট নন। আর এই কারণে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে এখন ব্যাপক পরিবর্তন আনাটা সময়ের ব্যাপার বলে মনে করা হচ্ছে। অবশ্য সরকারের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র জানাচ্ছে, ইতিমধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়ে গেছে। এর মধ্যে অন্তত সচিবসহ ৫ জন গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাকে অধিদপ্তর থেকে বদলি করা হয়েছে। কিন্তু এইটুকু বদলি যথেষ্ট নয়, বিশেষ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী দু’জনই করোনা মোকাবেলার ক্ষেত্রে হাল ছেড়ে দিয়েছেন। যেভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করা উচিত, সেভাবে তারা দায়িত্ব পালন করছেন না বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তারা মনে করছেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে বারবার তাগাদা দেওয়ার পরেও যে কাজগুলো প্রধানমন্ত্রী করতে বলেছেন, সেই কাজগুলো তিনি করছেন না। এটা স্যাবোটাজ কি না জানতে চাইলে সেই কর্মকর্তা বলেন, এটা স্যাবোটাজ বা ব্যর্থতা কিংবা অ’যোগ্যতা- যেটাই হোক না কেন, মূল কথা হলো প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা বাস্তবায়ন হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী করোনার শুরু থেকেই বিভিন্ন এলাকায় যেভাবে স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম চালু রাখতে বলেছিলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সেই কার্যক্রমগুলোকে এড়িয়ে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী শুরু থেকেই হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের ঠিকভাবে সুরক্ষা সামগ্রী দেওয়া, তাদের জন্য আলাদা পরিবহনের ব্যবস্থা করাসহ সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা দিয়েছিলেন। কিন্তু সেই নির্দেশনাগুলো বাস্তবায়িত হয়নি। প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে নমুনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করার জন্য সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা দিয়েছিলেন আরো ২ মাস আগে, কিন্তু সেই নির্দেশনাও বাস্তবায়ন করেনি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

সরকারের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো বলছে, স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের মাঝে চরম সমন্বয়হীনতা রয়েছে, দলগত প্রচেষ্টার অভাব রয়েছে এবং সরকার অনেক সহ্য করেছে, এরপরে সরকার আর সহ্য করতে পারেনা।

আওয়ামী লীগের একজন সিনিয়র মন্ত্রী, যিনি করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ব্যর্থতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন বলে জানা গেছে। তিনি জানিয়েছেন, শেখ হাসিনার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো জনগণ। জনগণের জীবন নিয়ে কেউ ছিনিমিনি খেললে তা শেখ হাসিনা কখনো সহ্য করেন না। এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী বারবার চেয়েছিলেন তাদেরকে সুযোগ দিতে এবং করোনা সং’কটের সময় যেন কোনোরকম ভুল বার্তা না যায় সেজন্য সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করার জন্য।

কিন্তু এখন সরকারের নীতিনির্ধারকরা এই ব্যাপারে একটি সিদ্ধান্তে এসেছেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নেতৃত্বে পরিবর্তন না আসলে করোনা পরিস্থিতি সামনে আরো ভ’য়াবহ হবে। বাংলাদেশে বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির যতটুক অবনতি হয়েছে, তা হয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ব্যর্থতার কারণে। আর এজন্যই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পরিবর্তন শুধু সময়ের ব্যাপার বলে মনে করছেন একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র।

বাংলাইনসাইডার

শেয়ার করুন !
  • 2.4K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!