করোনায় মা’রা গেলেন বিএনপির ওলামা দলের নেতা মাওঃ দ্বীন মোহাম্মদ

0

সময় এখন ডেস্ক:

বিএনপির অন্যতম অঙ্গ সংগঠন ওলামা দলের সাবেক প্রচার সম্পাদক মাওলানা দ্বীন মোহাম্মদ কাশেমী করোনা ভাইরাসে আক্রা’ন্ত হয়ে মা’রা গেছেন।

শুক্রবার (১৯ জুন) সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে রাজধানীর ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মা’রা যান। এদিন সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানান।

বিএনপির দপ্তর বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, মাওলানা দ্বীন মোহাম্মদের মৃ’ত্যুতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, মো. শাহজাহান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য জয়নুল আবদীন ফারুক, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন এবং সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম শোক প্রকাশ ও মরহুমের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

শোকবার্তায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি শহীদ জিয়াউর রহমানের নীতি-আদর্শ এবং বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদী দর্শনে গভীরভাবে আস্থাশীল থেকে মাওলানা দ্বীন মোহাম্মদ কাশেমী জাতীয়তাবাদী ওলামা দলকে শক্তিশালী ও গতিশীল করতে নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ করেছেন। এছাড়া বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ের আন্দোলন সংগ্রামেও ছিল তার সাহসী ও বলিষ্ঠ ভূমিকা।

বিএনপি মহাসচিব শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্য, আত্মীয়স্বজন, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শায়রুল কবির খান জানান, মাওলানা দ্বীন মোহাম্মদ বিএনপির দুর্যোগকালীন নেতা হিসেবে পরিচিত ছিলেন। এক-এগারোর সময় উলামা দলের সাবেক প্রচার সম্পাদক মাওলানা কাশেমীর রাজনৈতিক সং’কটে অনন্য ভূমিকা ছিল। ওই সময় রাজনৈতিকভাবে প্রথমবারের মতো জাতীয় প্রেসক্লাবে ইফতার ও আলোচনা সভার উদ্যোগ নেন মাওলানা কাশেমী।

বিএনপিতে করোনায় আক্রা’ন্তের সংখ্যা বেড়েছে

শায়রুল কবির খান জানান, বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে এখন পর্যন্ত প্রথম সারির কোনও নেতা করোনা ভাইরাসে আক্রা’ন্ত হওয়ার খবর না পাওয়া গেলেও সারাদেশে আক্রা’ন্তের সংখ্যা বেড়েছে।

নতুন করে ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাক, ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার বিএনপির সভাপতি আলী আজগর ও তার স্ত্রী করোনা ভাইরাসে আক্রা’ন্ত হয়েছেন। তারা দুজনে স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আর খন্দকার আশফাক নিজের বাসাতেই আইসোলেশনে রয়েছেন বলে জানান শায়রুল কবির খান।

উল্লেখ্য, গত ১৩ জুন বিএনপির মহাসচিব জানিয়েছিলেন, সেদিন পর্যন্ত তাদের কাছে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনা ভাইরাসে ১২১ জন নেতাকর্মী আক্রা’ন্ত হয়েছেন এবং ৫৬ জন নেতাকর্মী মৃ’ত্যুবরণ করেন।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!