‘পর্যাপ্ত টেস্টের অভাবে প্রকৃত অবস্থা অস্পষ্ট রয়ে যাচ্ছে’

0

সময় এখন ডেস্ক:

প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ বলেছেন, বাংলাদেশে করোনা মোকাবেলার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে গেছে টেস্ট। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে, বেশি করে টেস্ট করতে হবে। কিন্তু বাংলাদেশে টেস্ট এখনও পর্যাপ্ত নয়। যার কারণেই এখনও বোঝা যাচ্ছে না যে দেশে করোনা পরিস্থিতি আসলে কোন পর্যায়ে আছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বারবার তাগাদা দেওয়ার পরও টেস্টের পরিধি বাড়ানো হচ্ছে না। এখনও ৪৩টি জেলায় পরীক্ষার কোনো ব্যবস্থা নেই। এটি কখনই গ্রহণযোগ্য নয়।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি যখন বাংলাদেশে শুরু হয়েছিল, তখন থেকেই যদি এই চিন্তা-ভাবনাগুলো থাকতো যে আমাদের প্রচুর টেস্ট করতে হবে এবং সবগুলো জেলা শহরে আমাদের টেস্টের ব্যবস্থা করতে হবে। তাহলে আমাদের এই পরিস্থিতি হতো না। কিন্তু যা হবার তা হয়ে গেছে। এখন আমাদের টেস্টের সংখ্যা বাড়াতে হবে। এটি দুর্ভাগ্যজনক যে, বাংলাদেশের অধিকাংশ জেলায় টেস্টের কোনো ব্যবস্থাই নেই। এটি কাম্য নয়। টেস্টে যত বিলম্ব হবে, তত সং’ক্রমিত রোগীরা সং’ক্রমণ ছড়াবে। তারা এক স্থান থেকে অন্য জায়গায় চলাফেরা করবে। এর মাধ্যমে সং’ক্রমণ ছড়িয়ে পড়বে।

করোনা মোকাবেলার পদ্ধতি খুব সুস্পষ্ট এবং সুনির্দিষ্ট। এই পদ্ধতি হলো, আমাদের দ্রুত টেস্ট করতে হবে। যারা সং’ক্রমিত হবেন, তাদেরকে আইসোলেশনে নিতে হবে এবং তাদেরকে বিচ্ছি’ন্ন করতে হবে। এই পদ্ধতি যদি আমরা অনুসরণ করতে পারি, তাহলে আমরা করোনা সং’ক্রমণ ঠেকাতে পারবো। কিন্তু পর্যাপ্ত টেস্টের অভাবে সেই পদ্ধতি অনুসরণ করা যাচ্ছে না।

ডা. আব্দুল্লাহ বলেন, আমি বারবার বলেছি, র‍্যাপিড টেস্ট নিয়ে অনেক বিরো’ধ আছে। অনেকে অনেক কথা বলছেন। কিন্তু বাংলাদেশের বাস্তবতা আমাদের অনুভব করতে হবে। এখন হঠাৎ করে এতগুলো নতুন আরটি-পিসিআর মেশিন বসানো যাবে না। এটা সম্ভবও না। কাজেই আমাদের র‍্যাপিড টেস্টে যেতে হবে। পৃথিবীর অনেক দেশই এই র‍্যাপিড টেস্ট করেছে। এটি সেই দেশগুলোতে কার্যকর হয়েছে। এর ফলে যেটা সবচেয়ে লাভ হবে, সেটা হলো- রোগীদের ভোগা’ন্তি অনেক কমে যাবে। দ্রুত শনাক্ত করা ছাড়া আমাদের সামনে এখন আর কোনো বিকল্প নেই।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন এই মেডিসিন বিশেষজ্ঞ মনে করেন যে, আমাদের টেস্ট করতে যত বিলম্ব হবে এবং টেস্ট যত কম হবে, ততই করোনা সং’ক্রমণের ঝুঁ’কি বাড়বে। কাজেই আমাদের অ’বিলম্বে টেস্টের পরিধি বাড়াতে হবে এবং সর্বত্র ব্যাপকভাবে টেস্ট নিশ্চিত করতে হবে।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!