নির্বাচন: ইভিএম পরিচালনার দায়িত্বে সেনাবাহিনী

0

সময় এখন ডেস্ক:

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যেসব কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে, সেসব কেন্দ্রে এসব পরিচালনা করবে সেনাবাহিনী। শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন ।

ইভিএম মেশিন ব্যবহৃত হবে এমন কেন্দ্রগুলো সেনাবাহিনীর পরিচালনায় রাখার ব্যাপারে কমিশনের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে সচিব আরও বলেন, যেসব কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার হবে- সেসব কেন্দ্রে বিশেষ দায়িত্বে থাকবেন সেনাবাহিনীর দায়িত্বপ্রাপ্ত সদস্যবৃন্দ। ওইসব কেন্দ্রে অন্যান্য কেন্দ্রের মতো আলাদাভাবে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবেও সেনাবাহিনী থাকবে বলে জানান তিনি।

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ সেনাবাহিনীর দায়িত্ব সম্পর্কে বলেন, যেসব কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার করা হবে সেসব যন্ত্র পরিচালনার জন্য সেনাবাহিনী রাখা হবে। কারণ এটি একটি টেকনিক্যাল বিষয়। টেকনিক্যাল বিষয় এবং আস্থার বিষয়গুলো বিবেচনায় রেখেই পরিকল্পনা করা হয়েছে। তাছাড়া সেনাবাহিনীর নিজস্ব তত্ত্বাবধানে ইভিএম নিয়ে প্রকল্প রয়েছে, এ সম্পর্কে তাদের জ্ঞান অনেকের চাইতে বেশি।

ক্ষমতাসীন দলের মিছিলসহকারে শোডাউন করে মনোয়নয়ন ফরম সংগ্রহের বিষয়টি আচরণবিধিতে পড়ে কিনা জানতে চাইলে হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘বাংলাদেশে ভোট একটা উৎসব। সেই হিসেবে নির্দিষ্ট এলাকায় এটা হচ্ছে। আমাদের কাছে এটি আচরণবিধি লঙ্ঘন বলে প্রতীয়মান হয়নি।’

শনিবার মোহাম্মদপুরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে দুই জন নিহতের ঘটনা কমিশনের জানা নেই বলে ইসি সচিব উল্লেখ করেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রাজশাহী সমাবেশের বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব বলেন, ‘তারা আগে থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়েছিল, যে কারণে সেই বিষয়টি বিবেচনা করে আমরাও অনুমোদন দিয়েছি। তবে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আমরা নির্দেশ দিয়েছি, নতুন করে কোনও দলকে সভা-সমাবেশ করার অনুমতি না দিতে।’

উল্লেখ্য, ৮ নভেম্বর তফসিল ঘোষণার দিন সিইসি তার ভাষণে বলেছিলেন, ‘শহরকেন্দ্রিক ভোট কেন্দ্রগুলোতে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।’

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply