‘আমার একটাই দল- আওয়ামী লীগ, বিএনপির কুথাও আমার নাম নাইক্কা’

0

সময় এখন ডেস্ক:

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ঢাকা-১৪ (মিরপুর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র কিনেছেন চলচ্চিত্র অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। শনিবার রাজধানীর ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র কেনেন। তিনি আশা করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে মনোনয়ন দেবেন।

ডিপজল প্রতিবেদককে জানান, তিনি ঢাকার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ১৪ বছর নির্বাচিত কাউন্সিলরের দায়িত্ব পালন করেছেন। এখন জয়ী হয়ে সংসদে যেতে চান। তবে নেতা নন, সাধারণ মানুষের প্রতিনিধি হতে চান।

মনোয়ার হোসেন ডিপজলকে সাধারণ মানুষ বিএনপির লোক হিসেবে জানে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি নিজের ভাষাতেই বলেন, ‘জন্ম থেইকাই আওয়ামী লীগ করি আমি, আমি কুনোসময় বিএনপিতে আছিলাম না। কেউ কইবার পারব না, বিএনপির কুনো কমিটিতে আমার নাম আছে! আমি তো কুনো দলের হয়া কাউন্সিলর ইলেকশন করি নাই। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে কাউন্সিলর নির্বাচন করছি। আমার একটাই দল- আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের পক্ষেই নির্বাচন করতে চাই অহন।’

দাপুটে এই খল অভিনেতা বলেন, আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কাউন্সিলর নির্বাচন করেছি। সকলের কাছে জনপ্রিয়তা রয়েছে আমার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি মনোনয়ন দেন তাহলে এখানে আর কেউ দাঁড়াবে না, আমি পাস করবো ইনশাল্লাহ।

নির্বাচনী প্রচারণা কবে থেকে শুরু করছেন জানতে চাইলে ডিপজল বলেন, সবেমাত্র মনোনয়নপত্র জমা দিলাম। প্রার্থী বাছাইয়ের পর আমার আসনটি নিশ্চিত হলে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবো। এখন দলের সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে আছি।

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর)। তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৩ ডিসেম্বর (রোববার)। এ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ১৯ নভেম্বর (সোমবার)। মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২২ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার)। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার)।

তফসিল ঘোষণার পর গতকাল (শুক্রবার) থেকে শুরু হয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পত্রের ফরম বিক্রি। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির কার্যালয়ে সকাল ১০টা থেকে এই ফরম বিক্রি শুরু হয়।

মনোনয়নপত্রের ফরম কেনার জন্য আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির কার্যালয়ের সামনে সকাল থেকেই হাজার হাজার মানুষ ভিড় করেছেন। গতবার মনোনয়ন ফরমের দাম ২৫ হাজার টাকা থাকলেও এবার তা ৩০ হাজার টাকা করা হয়েছে।

এবারের সংসদ নির্বাচনে মোট ভোটার ১০ কোটি ৪১ লাখ ৯০ হাজার ৪৮০, যা গত ৩১ জানুয়ারি হালনাগাদ করা ভোটারের থেকে ৪৮ হাজার ৯৯ জন বেশি। ফেব্রুয়ারি থেকে ১০ অক্টোবর- এই সময়ের মধ্যে নতুন ভোটার হয়েছেন প্রায় ৫০ হাজার।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply