নীলফামারীতে মন্দিরে গো-মাংস ছোড়ায় শিক্ষকসহ ৪ জন গ্রেপ্তার

0

নীলফামারী প্রতিনিধি:

নীলফামারীর ডোমারে সনাতন ধর্মালম্বীদের কালী মন্দিরে গরুর মাংসের টুকরা ছুড়ে মারার সময় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষকসহ ৪ জনকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে এলাকাবাসী।

আটককৃতদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাদের নামে মামলা দিয়ে রবিবারে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে নীলফামারী ডিস্ট্রিক্ট জেলে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, পৌর এলাকা সাহাপাড়ার আব্দুল করিমের ছেলে বামুনীয়া কালীতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম মানিক, পশ্চিম বোড়াগাড়ী কলেজ পাড়ার প্রয়াত ইদু মামুদের ছেলে শফিক মিয়া, বড় রাউতা মাঝাপাড়া গ্রামের প্রয়াত দেবেন্দ্রনাথ বর্মণের ছেলে ফুলেশ্বর বর্মণ ও পশ্চিম চিকনমাটি ময়দান পাড়ার প্রয়াত সোলায়মান আলীর ছেলে জয়নাল আবেদীন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের বড় রাউতা কালী বাড়ী আশ্রমের কালী মন্দিরে শনিবার রাতের আঁধারে লাল কাগজে মোড়ানো একটি পোঁটলা ছুড়ে দেয় অভিযুক্তরা। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন তা দেখতে পায়। তারা পোঁটলাটি খুলে তাতে একটি মাংসের টুকরো পায়। যা গরুর মাংস বলে শনাক্ত করেন তারা।

সাম্প্র’দায়িক সম্প্রীতি ন’ষ্টের একটি প্রচেষ্টা বলে স্থানীয়রা মত দেন। আর তা প্রতিহত করতে স্থানীয় হিন্দু ও মুসলমানসহ এলাকাবাসী মিলে তাদেরকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আটককৃতদের থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে বড় রাউতা কালী মন্দির কমিটির সভাপতি ভূবন চন্দ্র রায় বাদী হয়ে ডোমার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ০২, তাং ০৪.১০.২০২০ ইং।

ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করি। গ্রেপ্তারকৃতদের ডিস্টিক্ট জেলে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। আমরা সার্বক্ষণিক নজরদারি রাখছি এলাকায় যেন অ’প্রীতিকর কোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয়।

এদিকে সনাতন ধর্মালম্বীরা গরুর মাংস মন্দিরে ছুড়ে অ’পবিত্র করার ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানান। পাশাপাশি ঘটনাটির সুষ্ঠু বিচার ও অপরাধীদের সাজা দাবি করেন।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!