বাংলাদেশকে কেন্দ্র করে চীনের মাষ্টার প্ল্যানে কী আছে?

0

বিশেষ প্রতিবেদন:

বাংলাদেশের মুক্তিযু’দ্ধের বিরো’ধিতা করেছিল চীন। পাকিস্থানের সঙ্গে মিলে সে সময় বাংলাদেশের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিল দীর্ঘদিন। সেই চীন এখন বাংলাদেশের প্রধান অর্থনৈতিক অংশীদার। বাংলাদেশে যতোগুলো মেগা প্রকল্প হচ্ছে তার বেশীর ভাগেই চীনের অংশগ্রহন রয়েছে। এটুকুই নয়, বাংলাদেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বৃদ্ধির রূপকল্প তৈরী করেছে দেশটি।

কিন্তু এতোদিনে বিশ্বের সব দেশই জানে বিনা স্বার্থে কোন বিনিয়োগে বিশ্বসী নয় চীন। এখন বাংলাদেশে যে বিনিয়োগ করছে চীন, তার নেপথ্যে রয়েছে একটি মাষ্টার প্ল্যান। এর মূল লক্ষ্য শুধু বানিজ্য নয়, এরচেয়েও বেশী। কিন্তু কূটনীতিক মহল বলছে, বাংলাদেশে চীনা বিনিয়োগের প্রধান কারণ কয়েকটি। এর মধ্যে আছে:-

১. উপমহাদেশে একচ্ছত্র কর্তৃত্ব:

ইতিমধ্যে নেপাল, মালদ্বীপ এবং শ্রীলঙ্কায় কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করছে চীন। বিনিয়োগ দিয়েই রাজনৈতিক কর্তৃত্ব অর্জন করেছে চীন। সেই ফর্মূলাতেই বাংলাদেশে অর্থনৈতিক বিনিয়োগের মাধ্যমে রাজনৈতিক কর্তৃত্ব চায় চীন। বাংলাদেশ সরকার যেন রাজনৈতিকভাবে চীনের ওপর নির্ভরশীল হয়, সে লক্ষ্যেই কাজ করছে চীন।

২. ভারতকে কোণঠাসা করা:

বাংলাদেশে অর্থনৈতিক আধি’পত্য বিস্তার করে ভারতকে কোণঠাসা করা চীনের মাষ্টার প্ল্যানের অন্যতম কৌশল। চীন এখন বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তবর্তী অঞ্চলগুলোতে বড় বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে। তিস্তা নদীর দুপাশে জলধার নির্মাণের জন্য ইতিমধ্যে ১০০ কোটি ডলারের ঋ’ণ মঞ্জুরীর অনুমোদন দিয়েছে চীন। এর যতোটা না বাংলাদেশের সমস্যা সমাধানের জন্য, তারচেয়ে বেশী ভারতকে চাপে ফেলতে। এছাড়া বাংলাদেশে ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকায় অর্থনৈতিক জোন স্থাপনেও আগ্রহ দেখাচ্ছে চীন। স্পষ্টতই এটিও ভারতকে চাপে ফেলতে।

৩. বঙ্গোপসাগরে কর্তৃত্ব:

অনেক কূটনীতিক মনে করেন, বাংলাদেশে চীনের আগ্রহের প্রধান কারণ হলো বঙ্গোপসাগর। ইতিমধ্যে এখানে সাবমেরিন দিয়ে চীন একধাপ এগিয়ে গেছে বলে মনে করেন অনেকে। সেই প্রক্রিয়ায় বঙ্গোপসাগরে কর্তৃত্ব নিতে মরিয়া চীন।

বাংলাদেশ নিয়ে চীনের মাষ্টার প্ল্যান খুব স্পষ্ট এবং সরাসরি। ভারতের সঙ্গে দ্বৈরথে বাংলাদেশ হতে পারে চীনের তুরুপের তাস। এজন্যই বাংলাদেশের ব্যাপারে এতো আগ্রহ চীনের। তবে ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে স্বাধীন হওয়া এই দেশটি কারো নাচের পুতুল যে হবে না সেটা নিশ্চিত। তাছাড়া বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্কের বাইরে কোন সম্পর্কে জড়াবে, এমনটা ভাবার কোন কারণ নেই। বাংলাইনসাইডার।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!