সঠিক পদক্ষেপ নেয়ায় করোনায় দেশে খাদ‌্যাভাব দেখা দেয়নি: প্রধানমন্ত্রী

0

সময় এখন ডেস্ক:

সরকার সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ নেয়ায় করোনায় দেশে খাদ‌্য সং’কট হয়নি বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (১১ অক্টোবর) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে সেনাবহিনীর ১০টি ইউনিটকে জাতীয় পতাকা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি করোনার সেকেন্ড ওয়েভের বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা চাই শান্তি। আমাদের মূল লক্ষ‌্য দেশের সার্বিক উন্নতি। আমরা বিশ্ব শান্তিতে বিশ্বাস করি। শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষায় কাজ করতে চায় বাংলাদেশ।

শেখ হাসিনা বলেন, করোনার কারণে শুধু বাংলাদেশে নয়, সারা বিশ্বে একটা স্থ’বিরতা এসে গেছে। কিন্তু আমাদের অর্থনীতি যেন স্থ’বির না হয়ে পড়ে সেজন‌্য শুরু থেকেই নানা পদক্ষেপ নিয়েছি। বিশেষ প্রণোদনা প‌্যাকেজ ঘোষণা করেছি।

প্রচুর পরিমাণ খাদ‌্য উৎপাদন করতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের চাল, গম, মাছ, ফল, তরকারি সব কিছুর উৎপাদন বাড়াতে হবে। যাতে কোনো মতে খাদ‌্য সং’কট দেখা না যায়। করোনায় বিশ্বব‌্যাপী খাদ‌্যাভাব দেখা দিচ্ছে। অনেক উন্নত দেশও হিমশিম খাচ্ছে। কিন্তু আমরা সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ নিয়েছি। যার কারণে করোনাকালেও দেশে খাদ্যের সং’কট দেখা দেয়নি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখনো করোনা ভাইরাস আছে। আশ’ঙ্কা করা হচ্ছে, আবার করোনার প্রভাব দেখ দিতে পারে। ইউরোপসহ নানা দেশে নতুন করে করোনার প্রভাব দেখা দিচ্ছে। তাই এখন থেকে আমাদের সচেতন থাকতে হবে, সুরক্ষিত থাকতে হবে।

এ সময় সামরিক বাহিনীর আধুনিকায়নে বর্তমান সরকার সর্বাত্মকভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন সরকার প্রধান। এজন্য সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বলে জানান তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সামরিক বাহিনীকে আধুনিক যুগোপযোগী করতে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

করোনায় চলে গেলেন ভাষাসৈনিক মাজহারুল ইসলাম

করোনা পজেটিভ হয়ে মা’রা গেছেন ভাষাসৈনিক অধ্যাপক ডা. মির্জা মাজহারুল ইসলাম। রোববার (১১ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর বারডেম জেনারেল হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা যান তিনি। তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।

বারডেম জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক (জনসংযোগ) ফরিদ কবির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মাজহারুল ইসলাম আজ সকাল ৯টায় মা’রা যান। তিনি বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর তাকে বারডেমের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

প্রসঙ্গত, অধ্যাপক ডা. মাজহারুল ইসলাম আজীবন বারডেম জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের অনারারি চিফ কনসালট্যান্ট ছিলেন। তিনি ১৯৫৪ সালে অনারারি হাউস সার্জন হিসেবে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে কর্মজীবন শুরু করেন।

মাজহারুল ইসলামের জন্ম ১৯২৭ সালের ১ জানয়ারি টাঙ্গাইলের কালিহাতি উপজেলার আগচারান গ্রামে। তিনি ১৯৫২ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) থেকে এমবিবিএস পাস করেন। ভাষা আন্দোলনে অবদানের জন্য তাকে ২০১৮ সালে একুশে পদক দেয়া হয়।

শেয়ার করুন !
  • 304
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!