প্রাণদ’ণ্ড চান না, ন্যায়বিচার চাইলেন ডা. জাফরুল্লাহ

0

সময় এখন ডেস্ক:

ধ* এর সর্বোচ্চ সাজা ফাঁ’সি নয়, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করুন। তাহলে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লা‌বের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে জাতীয় স্মরণ মঞ্চের উদ্যো‌গে মুক্তিযো’দ্ধা ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল স্মরণে নাগরিক শোকসভায় তি‌নি এ মন্তব্য করেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ধ* এর সর্বোচ্চ সাজা ফাঁ’সি। কত দ্রুত একটা আইন করে ফেললো সরকার। কিন্তু এটা শুধু ডাইভারশন। এটা পথকে অন্য দিকে ঘুরিয়ে নিয়ে যাওয়া। আসলে এর প্রতিকার কী? এর প্রতিকার হলো ন্যায়বিচার। আর এই ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করতে হলে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তিনি বলেন, সরকার প্রতিটি ক্ষেত্রেই ভুল করছে। ফাঁ’সির সিদ্ধান্তটাও অত্যন্ত ভুল। এর চেয়ে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করুন। ন্যায়বিচার কোনো কঠিন কাজ না। দ্রুত ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করলে ১৫ দিন বা ৭ দিনের মধ্যেই যারা ধ* তাদের ৮০ শতাংশ ধরা পড়ে যাবে। তাদের বিরু’দ্ধে চার্জশিট গঠন করে বিচার করুন। আর যারা ধরা পড়বে না তাদের জন্য আলাদা মামলা করুন। তাহলে দেখবেন দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভালো কাজও করেছেন। তাহলে একটি মধ্যবর্তী নির্বাচন দিয়ে দেখেন না। আর জনগণের কাছে গিয়ে বলবেন আমি ফাঁ’সি এনেছি। এই ফাঁ’সির পক্ষে জনগণ যদি আপনাকে ভোট দেয় তাহলে মনে করবো আমরা ভুল ছিলাম।

সংগঠনের সহ-সভাপতি লায়ন আলামীনের সভাপতিত্বে সভায় আরো উপ‌স্থিত ছি‌লেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপি চেয়ারপারসন উপদেষ্টা আবদুল হাই শিকদার, মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি উলফাত আজিজ, সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, গণস্বাস্থ্যের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু প্রমুখ।

ওরা পশু- বললেন প্রধানমন্ত্রী

ধ* দের ‘পশু’ হিসেবে অভিহিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, পশুত্ব বেড়ে গেলেই মানুষ ধ* হয়ে ওঠে। নারীদের এই পশুর হাত থেকে বাঁচাতে সরকার সংশ্লিষ্ট আইনে মৃ’ত্যুদ’ণ্ডের বিধান যুক্ত করেছে।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রী আন্তর্জাতিক দুর্যোগ ঝুঁ’কি হ্রাস দিবস ২০২০-এর ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ধ* রা হলো পশু, যে কারণে তারা তাদের অ’মানবিক প্রকৃতি দেখায়, এই কারণেই আমাদের মেয়েরা ক্ষ’তিগ্রস্থ হয়, আমরা আইন সংশোধন করেছি এবং সর্বোচ্চ সাজা ফাঁ’সি অন্তর্ভুক্ত করে আমরা মন্ত্রিসভায় সংশোধনীটি পাস করেছি।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, যেহেতু এখন পার্লামেন্ট চলছে না, তাই এ বিষয়ে অধ্যাদেশ জারি করা হয়েছে। এভাবে যে কোনো সং’কটজনক পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা উদ্যোগ নিচ্ছি।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!