বেগমগঞ্জ থানার সেই ওসি প্রত্যাহার

0

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর একলাশপুরের ঘটনায় সমালোচনার মধ্যে বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি হারুন অর রশিদ চৌধুরীকে প্র’ত্যাহার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে তাকে প্র’ত্যাহার করে চট্টগ্রাম ডিআইজি অফিসে সংযুক্ত করা হয়েছে। তবে কী কারণে তাকে প্র’ত্যাহার করা হয়েছে তা অফিস আদেশে উল্লেখ করা হয়নি বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) দীপক জ্যোতি খীসা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ডিআইজি অফিস থেকে পাঠানো এক আদেশে ওসি হারুন অর রশিদ চৌধুরীকে বর্তমান কর্মস্থল থেকে ডিআইজি অফিসে যোগদান করতে বলা হয়। মঙ্গলবার এ আদেশ পাওয়ার পর পরই তা বস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে।

ওসি হারুন আজ বিকেলের মধ্যে নতুন কর্মস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন বলে জানান দীপক জ্যোতি খীসা।

প্রসঙ্গত, গত ২ সেপ্টেম্বর বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের জয়কৃষ্ণপুরে স্থানীয় দেলোয়ার বাহিনীর ৭-৮ জন সদস্য এক নারীকে তার ঘরে বি-বস্ত্র করে শারীরিক নির্যা’তন করে। যার ভিডিও গত ৪ অক্টোবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যা’তন দ’মন আইন ও ২০১২ সালের প* গ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন। আসামিরা হলেন- বাদল, মো. রহিম, আবুল কালাম, ইস্রাফিল হোসেন, সাজু, সামছুদ্দিন সুমন, আবদুর রব, আরিফ ও রহমত উল্যা। তাদের সবার বাড়ি বেগমগঞ্জে।

ঘটনাটি এক মাস পূর্বের কিন্তু পুলিশ কিছু জানতে পারল না কেন, এ প্রশ্নের জবাবে গত ৫ অক্টোবর ওসি হারুন বলেন, আমাদের কেউ জানায়নি। কেউ অভিযোগও করেনি। ফলে আমরা জানতে পারিনি। ফেসবুকে ভিডিও ভাইরাল হলে আমরা জানতে পারি।

ওসির এই জবাবটি গ্রহণযোগ্য নয় বলে মনে করেন পুলিশের সাবেক এআইজি এবং ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের সাবেক প্রধান সৈয়দ বজলুল করিম। তিনি বলেন, কেউ জানাবে সেজন্য পুলিশের বসে থাকার সুযোগ নেই। অনেক সময় ক্ষমতাধরদের কারণে মানুষ মুখ খোলে না। কিন্তু পুলিশের তো তথ্য সংগ্রহের নিজস্ব চেইন থাকে। গ্রামের চৌকিদারও তাদের তথ্য দিতে বাধ্য। আর এখন থানা পর্যায় পর্যন্ত গোয়েন্দা সংস্থা কাজ করে।

তার মতে, এজন্য ওই থানার ওসি হারুন অর রশীদ দায়ী। হয় তিনি জেনেও ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য গোপন করেছেন অথবা তিনি থানায় কিছু খেয়ে ঘুমিয়ে কাটান। তার দায়িত্ববোধ বলে কিছু নেই।

শেয়ার করুন !
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!