রাঙ্গুনিয়ায় মাদ্রাসা শিক্ষক মাওলানা নাসির উদ্দিন গ্রেপ্তার

0

সময় এখন ডেস্ক:

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় কোমলমতি শিক্ষার্থীকে বলা-ৎকারের দায়ে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে ‍পুলিশ। রাঙ্গুনিয়া উপজেলার স্বনির্ভর রাঙ্গুনিয়া এলাকার মাদ্রাসা শিক্ষক মাওলানা নাসির উদ্দিনকে (৩৫) সোমবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নাসির উদ্দিন কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার ছোট বেউলা এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে। তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার আহমদিয়া আজিজুল উলুম মাদ্রাসার হোস্টেল সুপার হিসেবে কাজ করেন।

রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের এএসপি আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, ওই শিক্ষক মাদ্রাসার হোস্টেলে থাকা কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সময়ে শারীরিক নির্যা’তন চালাতেন। শিক্ষকের ভ’য়ে শিক্ষার্থীরা কোন অভিযোগ করেনি।

সম্প্রতি ৪ জন শিশুর অভিভাবক রাঙ্গুনিয়া থানায় অভিযোগ করেন। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার রাতে মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে নাসিরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা শামীম বলেন, ওই শিক্ষক দীর্ঘদিন দরে মাদ্রাসার হোস্টেলে এ অপ’কর্ম করতেন বলে আমরা জানতে পেরেছি। ছেলে শিশুদের ব্যাপারে তার আস’ক্তি থেকে এ ধরনের ঘটনা ঘটাতেন। কোনো কোমলমতি শিক্ষার্থী তার অপ’কর্মে রাজি না হলে তার ওপর অ’মানুষিক নির্যা’তন চালানো হত।

শিক্ষার্থীদের ওপর যৌ* নিপী’ড়নের কথা নাসির স্বীকার করেছেন বলে জানান এএসপি শামীম।

মাওলানা নাসির উদ্দিনকে আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয়েছে মঙ্গলবার। আদালতেও তিনি দোষ স্বীকার করে স্টেটমেন্ট দিয়েছেন।

এদিকে ওই মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেন প্রতিবেদক। (শিক্ষার্থীদের নাম প্রকাশ করা হয়নি) তারা জানায়, হুজুর তাদেরকে রাতে পড়া দেখানোর কথা বলে তার ব্যক্তিগত কক্ষে নিয়ে যান। তারপর সেখানে হুজুরের হাত পা মালিশ করে দিতে বলে। এরপর হুজুর তাদেরকে বি-বস্ত্র করে তেল মেখে অপ’কর্ম করেন। বাধা দিতে গেলে মা’রধর করেন। হুজুরের কথা কাউকে বললে গুনাহ হবে বলে তাদেরকে ভ’য় দেখান।

মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করার আগে ৫ বছর বিদেশে ছিলেন মাওলানা নাসির উদ্দিন। তার এ ধরণের অপ’কর্মের কথা জানতে পারার পর ২০১৮ সালে তার স্ত্রী শিশু সন্তানকে নিয়ে আলাদা হয়ে যায় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

শেয়ার করুন !
  • 1.2K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply