এবার আসছে চিকিৎসকদের গণপদোন্নতি!

0

বিশেষ প্রতিবেদন:

চিকিৎসকদের গণপদোন্নতি হতে যাচ্ছে। প্রায় ৩৫০ জন সহকারী অ্যধাপক সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পাবেন।

অতীতে চিকিৎসকদের পদোন্নতি নানা কারণে অনেক সময় আটকে ছিলো। একজন সহকারী অধ্যাপককে চলতি দায়িত্বে পদোন্নতি দিয়ে সহযোগী অধ্যাপকের দায়িত্ব দেয়া হয়েছিলো কিন্তু তাদের পদোন্নতি হয়নি। যখন অবসর নিবেন তখন তাকে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে অবসর নিতে হতো। কিন্তু তিনি সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে পরিচিত হতেন।

পরবর্তীতে সহকারী অধ্যাপক থেকে সহযোগী অধ্যাপকে পদোন্নতি দেয়া হয়, তখন দেখা যায় যে চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত অনেকেই সহযোগী অধ্যাপক হওয়ার যে নূন্যতম যোগ্যতা সে যোগ্যতা অর্জন করেননি। ফলে তারা চলতি দায়িত্বই পালন করতে থাকে অথচ যারা সহকারী অধ্যাপক ছিলেন এমন অনেকেই সহযোগী অধ্যাপক হয়ে গেছেন।

এরকম প্রায় ৩৫০ জন চিকিৎসককে চিহ্নিত করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। সহযোগী অধ্যাপক হওয়ার যে ৩টি যোগ্যতা সেটা তাদের নাই। সহযোগী অধ্যাপক হতে হলে সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড পাশ করতে হয়, ৩টা পাবলিকেশন্স থাকতে হয় এবং অন্তত ৩ বছর সহকারী অধ্যাপক থাকতে হয়। এদের অনেকে সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড পাশ করেননি বা প্রকাশনা নেই কিন্তু চলতি দায়িত্ব হিসেবে তারা সহযোগী অধ্যাপকের দায়িত্ব পালন করছেন।

এই সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবনা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিলে চিকিৎসকদের গণপদোন্নিতি হবে। প্রায় ৩৫০ জন সহকারী অ্যধাপক সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পারেন। এদের অনেকেরই চাকরি প্রায় শেষ পর্যায়ে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, যে চিকিৎসকদের চাকরির মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে অথচ যাদের প্রকাশনা নেই বা সুপিরিয়র সিলেকশন বোর্ড পাশ নেই। যারা পদোন্নতি ব’ঞ্চিত হচ্ছেন তাদের যোগ্যতা শিথিল করে পদোন্নতি দেয়ার জন্য প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, এতে আর্থিক ব্যয় একদমই বাড়বে না কারণ যারা সহকারী অ্যধাপক হিসেবে চাকরি করে পদোন্নতি পেতে পেতে সর্বোচ্চ বেতনে সহযোগী অধ্যাপকের সমানই বেতন পান। শুধু অবসরের সময়ে তাদের সহযোগী অধ্যাপকের সম্মানটুকুর জন্যই এই প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিলে বাংলাদেশের ইতিহাসে স্বাস্থ্যখাতে সবচেয়ে বড় গণপদোন্নতিটি হতে পারে। বাংলাইনসাইডার।

শেয়ার করুন !
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply