যা লেখা ছিল সাকিবের সেই পূজার আমন্ত্রণ পত্রে

0

সময় এখন ডেস্ক:

কলকাতায় বিধায়ক পরেশ পালের আমন্ত্রণে কালীপূজার আনুষ্ঠানিকতায় সাকিব আল হাসানের অংশ নেওয়া নিয়ে আলোচনা সমালোচনা চলছেই। সাকিব ও পরেশ- দু’জনই ঘটনার পরে নিজেদের মতো করে দিয়েছেন ব্যাখ্যাও। কিন্তু কী লেখা ছিল সেই আমন্ত্রণ পত্রে?

আমন্ত্রণ পত্রের লেখা হুবহু তুলে ধরা হলো:

‘মহাশয়
প্রত্যেক বছরের ন্যায় এ বছরও আগামী ১২ই নভেম্বর’ ২০২০, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় আমরা সবাই পরিচালিত ৫৯তম বর্ষে কাঁকুড়গাছি সম্মিলিত সার্বজনীন শ্রী শ্রী শ্যামা পূজার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন।

উদ্বোধক হিসাবে উপস্থিত থাকবেন মাননীয় মহানাগরিকও রাজ্যের মন্ত্রী জনাব ফিরহাদ হাকিম, এছাড়া উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশের স্বনামধন্য ক্রিকেটার জনাব সাকিবুল হাসান।

উক্ত অনুষ্ঠানে আপনি সম্মানীয় অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকিলে আন্তরিকভাবে খুশি হব।

বিনীত
পরেশ পাল, বিধায়ক’

কালীপূজার উদ্বোধন করেননি সাকিব- বিবিসিকে বললেন আয়োজকরা

বাংলাদেশের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের কলকাতায় একটি কালীপূজার উদ্বোধনে থাকা নিয়ে যে সমালোচনা হচ্ছে, তা উ’গ্র মৌ’লবাদীদের কাজ বলে মনে করেন ওই পূজা কমিটির প্রধান উদ্যোক্তা ও তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পরেশ পাল।

তিনি বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, সাকিব আল হাসান তাদের পূজোর উদ্বোধন কখনই করেননি। তাই মুসলমান হয়েও হিন্দুদের পূজায় কেন হাজির ছিলেন, সেই প্রশ্ন তুলে তার সমালোচনা করা অ’ন্যায্য। ওই পূজার উদ্বোধন আসলে করেছিলেন এক হিন্দু সন্ন্যাসী, বলছেন পূর্ব কলকাতার বেলেঘাটা অঞ্চলের বিধায়ক পরেশ পাল।

পূর্ব কলকাতার কাঁকুড়গাছি এলাকায় যে কালীপূজার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বাংলাদেশে সমালোচনার মুখে পড়েছেন তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান, সেই মণ্ডপটি এখন ফাঁকা। প্রতিমা বিসর্জন হয়ে গেছে। কিন্তু পূজা মণ্ডপের চারদিকে এখনও বড় বড় হোর্ডিংয়ে সাকিব আল হাসানের ছবি ছড়িয়ে রয়েছে।

গত ৫৯ বছর ধরে চলা পূজাটির মূল উদ্যোক্তা এলাকার বিধায়ক পরেশ পাল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি বলেন, “শুনেছি যে সাকিব দেশে ফেরার পরে ওকে প্রাণে মা’রার হুম’কি দেওয়া হয়েছে। একটা মৌ’লবাদী শক্তিই এসব বলছে। বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের মতামত এটা হতে পারে না। আমারও জন্মভিটা বাংলাদেশেই। আমি বাংলাদেশের মানুষকে খুব ভাল করে জানি, তারা এসব বলতে পারে না।”

পরেশ পাল বলেন, “পূজার উদ্বোধনের দিন তো কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমও ছিল। ফিরহাদ হাকিম প্রতিবছরই আমার পূজার উদ্বোধনে থাকে। এ বছর কলকাতায় বাংলাদেশ উপরাষ্ট্রদূতসহ একাধিক মুসলমান ধর্মাবলম্বী কর্মকর্তা হাজির ছিলেন। কিন্তু তারা কেউই পূজার ধর্মীয় কোনও কাজ তো করেনি। প্রতিমা উদ্বোধন করেছেন আদ্যাপীঠের কালী পূজারী হিন্দু সন্ন্যাসী মুরালভাই।”

কালী পূজার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভিডিও দেখিয়ে তিনি বলছিলেন, “ওখানে একটা বড় প্রদীপ রাখা ছিল। সকলেই সেই প্রদীপটা জ্বালিয়েছেন। আমি যেমন জ্বালিয়েছি, তেমন সাকিব আল হাসান, ফিরহাদ হাকিম- সবাই জ্বালিয়েছেন। প্রদীপ জ্বালালেই কি জাত যায় নাকি?” প্রশ্ন পরেশ পালের।

পরেশ পাল জানান, তার নির্বাচনী এলাকাতে একটা বড় সংখ্যক মুসলমান থাকেন, যারা তাকে ভোট দেন বছরের পর বছর। তাই তার মাথাতেই আসেনি যে সাকিব আল হাসানকে কালীপূজার উদ্বোধনের মঞ্চে আমন্ত্রণ করে তিনি কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘা’ত দিতে পারেন, বলছিলেন পরেশ পাল।

গত কয়েকদিন ধরে একের পর এক ঘটনা ঘটে চলেছে সাকিব আল হাসানকে ঘিরে। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার এর আগেও নানারকম বিত’র্কে জড়িয়েছেন।

তবে এবার ১ বছর নিষে’ধাজ্ঞা শেষে দেশে ফেরার পর তাকে ঘিরে শুরু হয়েছে ৩টি বিত’র্ক। দেশে ফেরার পরদিন করোনাবিধি না মেনে একটি সুপারশপ উদ্বোধন করা থেকে শুরু। ওই অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধির বিষয়গুলো মানা হয়নি এবং অনুষ্ঠানে অনেক মানুষের ভিড়ও দেখা গেছে।

এরপর বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে কলকাতা যাওয়ার পথে সাকিবের হাত লেগে এক ভক্তের মোবাইল পড়ে যাওয়া নিয়ে বিত’র্কের পালে আরও হাওয়া লাগে। এর ব্যাখ্যায় সাকিব তার ভিডিও বার্তায় বলেছেন যে, ওই ভক্ত তার অনুমতি ছাড়াই এবং স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অনেকটা গায়ের ওপর উঠে ছবি তোলার চেষ্টা করেছেন। এ সময় তাকে সরিয়ে দিতে গেলে সাকিবের হাত লেগে ওই ব্যক্তির ফোন পড়ে যায়।

বিত’র্ক হিমালয় চূড়া স্পর্শ করে সাকিবের কলকাতায় পূজায় আমন্ত্রিত হয়ে যাওয়ার খবরে। অনেকেই ক্ষো’ভ প্রকাশ করতে থাকেন এ নিয়ে। এমনকি এজন্য তাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের লাইভে হ’ত্যার হুম’কি দেন সিলেটের এক ছাত্রদল নেতা। পরে অবশ্য তাকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। এরপর ইউটিউবে ‘পূজা উদ্বোধন করিনি’ বলে জানান সাকিব।

শেয়ার করুন !
  • 11
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply