লতিফ-মিল্লাতের পদচ্যুতি হলো সভাপতি শেখ হাসিনার ‘কঠোর বার্তা’

0

সময় এখন ডেস্ক:

সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে আব্দুল লতিফ বিশ্বাস ও হাবিবে মিল্লাত মুন্নাকে অ’ব্যাহতি তৃণমূলের জন্য দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার একটি বার্তা বলে জানিয়েছেন, দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

কী সেই বার্তা, সেটা নিয়ে সুষ্পষ্টভাবে কিছু না বলে ক্ষমতাসীন দলের নেতা বলেন, দলের অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলাকে এখন গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) ঢাকায় সরকারি বাসভবন থেকে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী।

পুরো দেশে সাংগঠনিক নেতৃত্বের ওপর দলীয় সভাপতির দৃষ্টি রয়েছে উল্লেখ করে কাদের বলেন, শেখ হাসিনার কাছে সকলের পারফরম্যান্সের রিপোর্টও রয়েছে।

গত ২২ নভেম্বর সিরাজগঞ্জ আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ থেকে আবদুল লতিফ বিশ্বাস ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে হাবিবে মিল্লাত মুন্নাকে বাদ দেয় আওয়ামী লীগ। লতিফ বিশ্বাস ২০০৯ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ও একাদশ সংসদ নির্বাচনে তিনি দলের মনোনয়ন পাননি। বর্তমানে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান।

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. হাবিবে মিল্লাত ২০১৪ ও গত সংসদ নির্বাচনে সিরাজগঞ্জ সদর আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর বেয়াই খন্দকার মোশাররফ হোসেনের জামাতা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, যারা বর্তমানে বিভিন্ন পর্যায়ে জনপ্রতিনিধি রয়েছেন, দলীয় দায়িত্ব পালন করছেন, তাদের কার্যক্রমও গুরুত্বসহকারে মনিটর করা হচ্ছে।

সততা, নিষ্ঠা ও দলের প্রতি ত্যাগের স্বীকৃতিস্বরুপ জেলা থেকে কেন্দ্রে পুরস্কৃত করা হয়েছে বলেও জানান আওয়ামী লীগ নেতা। মূল দল ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাংগঠনিক শৃঙ্খলা মেনে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণের আহ্বানও জানান কাদের। দলের প্রতি ত্যাগ, সততা ও নিষ্ঠা থাকলে বঙ্গবন্ধু কন্যা তৃণমূল থেকে সময়মতো যে কাউকে দল এবং সরকারে দিতে পারেন বলেও জানান সড়ক মন্ত্রী।

আওয়ামী লীগ কোনো অ’নিয়ম, দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয় না জানিয়ে তিনি বলেন, যে কোনো অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া মাত্রই নেয়া হচ্ছে সাংগঠনিক ব্যবস্থা। শেখ হাসিনার কাছে অপরাধীর পরিচয় অপরাধীই। গুটি কয়েক মানুষের অপরাধের জন্য সরকারের অর্জনগুলো ম্লান হতে দেয়া যায় না। অপরাধের দায় ব্যক্তির, দলের নয়।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, অ’নিয়ম দুর্নীতির বিরু’দ্ধে শেখ হাসিনা যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছিলেন, তা এখনও চলমান আছে, ভবিষ্যতেও অ’ব্যাহত থাকবে।

আওয়ামী লীগ একটি সুশৃঙ্খল রাজনৈতিক দল উল্লেখ করে কাদের বলেন, আওয়ামী লীগে অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র চর্চার পাশাপাশি দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দু’ষ্টের দ’মন ও শিষ্টের লালন নীতি অনুসরণ করা হয়। রাজনৈতিক পরিচয়ে অপরাধ করার সুযোগ নেই। দল কখনও কোনো অপরাধীকে রক্ষা করার ঢাল হবে না।

কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনার মৃ’ত্যুতে গভীর শোক জানিয়ে কাদের বলেন, ম্যারাডোনা ছিলেন কোটি ফুটবল ভক্তের প্রাণ। তার মৃ’ত্যু ফুটবল তথা ক্রীড়া বিশ্বের জন্য অপূরণীয় ক্ষ’তি।

শেয়ার করুন !
  • 95
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply