ডাকের ডিজি ও তার ঘনিষ্ঠ নারী কর্মকর্তার বিদেশযাত্রা বন্ধ

0

সময় এখন ডেস্ক:

শত কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগে ডাক বিভাগের সাবেক মহাপরিচালক (ডিজি) সুধাংশু শেখর ভদ্রের (এস এস) বিরু’দ্ধে অনুসন্ধান করছে দুদক। সেই অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে তার বিদেশযাত্রায় নিষে’ধাজ্ঞা চেয়ে পুলিশের বিশেষ শাখায় (এসবি) চিঠি দিয়েছে দুদক।

মঙ্গলবার কমিশনের উপ-পরিচালক ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা মো. সালাহউদ্দিন পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) বিশেষ পুলিশ সুপার (ইমিগ্রেশন) বরাবর চিঠি পাঠিয়ে বিষয়টি জানিয়েছেন। একই অভিযোগে ডাক অধিদপ্তরের পরিদর্শক রাবেয়া খাতুনের দেশত্যাগের ওপরেও নিষে’ধাজ্ঞা চেয়েছেন অনুসন্ধান কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, বিভিন্ন অভিযোগে তার বিরু’দ্ধে কমিশন থেকে অনুসন্ধান করা হচ্ছে। আমরা জানতে পেরেছি, তিনি দেশত্যাগ করতে পারেন। আর তিনি দেশত্যাগ করলে কমিশনের অনুসন্ধান ব্যা’হত হবে। এ কারণে পুলিশের বিশেষ শাখায় তার বিদেশযাত্রায় নিষে’ধাজ্ঞা চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

পড়ুন: রাবেয়ার মুঠোয় দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত ডাক-ডিজি এস এস ভদ্র’র পাসওয়ার্ড!

এ বিষয়ে দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য বলেন, ডাক অধিদপ্তরের কয়েকটি প্রকল্পের কোটি কোটি টাকা লোপাট ও অ’বৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে সুধাংশু শেখর ভদ্রের দেশত্যাগে নিষে’ধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। ভদ্র ও রাবেয়া যাতে দেশত্যাগ করতে না পারেন, সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বিশেষ পুলিশ সুপারকে (ইমিগ্রেশন) পাঠানো চিঠিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এর আগে ২ সেপ্টেম্বরে প্রকল্পের নামে শত কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগে সুধাংশু শেখরকে জেরা করে দুদক। দুদক সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকারভিত্তিক প্রকল্পের শত শত কোটি টাকা লোপাট করেছেন ডাক বিভাগের এই সাবেক মহাপরিচালক এসএস ভদ্র।

উল্লেখ্য, সারাদেশে সাড়ে ৮ হাজার আধুনিক ডাকঘর নির্মাণের জন্য ২০১২ সালে ৫৪০ কোটি ৯৪ লাখ টাকা বরাদ্দ করে সরকার কিন্তু বেশির ভাগ জেলায় সেই ডাকঘর নির্মাণ না করেই টাকা তুলে নেন বিভাগের মহাপরিচালক সুধাংশু শেখর ভদ্র।

এই নিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করে, যে কমিটি কেনাকাটা থেকে শুরু করে প্রকল্প সবখানেই দুর্নীতির প্রমাণ পায়।

প্রসঙ্গত, সুধাংশু শেখর ভদ্র ওরফে এস এস ভদ্রের পুত্র অনিন্দ্য গৌরব উপল সদ্য পাস করা আর্কিটেক্ট। তিনি ‘কুশলী নির্মাতা’ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত। আর ডাক বিভাগের বৃহৎ নির্মাণের প্রায় সবগুলোরই কার্যাদেশ পায় ‘কুশলী নির্মাতা’। আগারগাঁওয়ে স্থাপিত শত কোটি টাকা ‘ডাক ভবন’, শাহজাহানপুরে নির্মিত ৮টি ২০ তলা ভবনের কাজ করছে কুশলী নির্মাতা।

এছাড়া জরাজীর্ণ ডাকঘর প্রকল্পের আওতায় ৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে বনানী পোস্ট অফিস ভবন, মতিঝিলে ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ডাক ঘর নির্মাণের কার্যাদেশও ‘কুশলী নির্মাতা’কে দেয়ার প্রক্রিয়াও চূড়ান্ত হয়েছিল।

শেয়ার করুন !
  • 61
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply