মিরসরাই অর্থনৈতিক জোনে কারখানা ডিসেম্বরেই চালু হবে

0

অর্থনীতি ডেস্ক:

আগামী ডিসেম্বরেই মিরসরাই অর্থনৈতিক জোনে প্রথম শিল্প হিসাবে আরমান হক ডেনিম লিমিটেডে উৎপাদন শুরু হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইতোমধ্যেই এই কারখানাটির নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে।

আরমান হক ডেনিম লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এসএনআর তৌফিক জানান, আমরা আগামী ডিসেম্বরে কারখানায় উৎপাদন কাজ শুরু করার পরিকল্পনা করেছি। অর্থনৈতিক জোনে প্রথম দফা বরাদ্দ পাওয়া প্লটগুলোর মধ্যে আরমান হক ডেনিম লিমিটেডের এ প্লটটি একটি। পরিকল্পনা অনুযায়ী সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী মার্চে কারখানার নির্মাণ কাজ শুরু হবে। কারখানায় আন্তর্জাতিক মানের গ্রীন গ্লোবাল কমপোজিট ডেনিম উৎপাদন হবে। বছরে ১০.৮ মিলিয়ন মিটার ডেনিম কাপড় তৈরি হবে। তিনি বলেন, ১০ একর জমির উপর কারখানাটি তৈরি হচ্ছে। ইউরোপীয় এবং যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ডেনিম কাপড়ের বাড়তি চাহিদা মেটাতে ৩শত কোটি টাকা বিনিয়োগ করে এই কারখানাটি নির্মাণ করা হচ্ছে।

তৌফিক বলেন, ইন্ডাষ্ট্রির মুখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে, উৎপাদন সক্ষমতার মধ্যে ডেনিম উৎপাদনের পরিমাণ বৃদ্ধি করা এবং দেশের বস্ত্র ও তৈরি পোশাক শিল্পে সার্বিক অবস্থাকে সুসংহত করা। আন্তর্জাতিক বাজারে ডেনিমের চাহিদা বেড়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে অবস্থান ভাল করা, বিদেশী নির্ভরতা কমানো এবং স্থানীয় বাজারে ব্যাকওয়ার্ড এবং ফরওয়ার্ড লিঙ্কেজ উন্নত করাই এই প্রকল্পের লক্ষ্য।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের ডেনিমের চাহিদা বছরে ৯% হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের ৭০% লোক ডেনিম কাপড়ের তৈরি পোশাক পরিধান করে। বর্তমানে একমাত্র বাংলাদেশেই ৩০টি ডেনিম মিল রয়েছে। প্রায় ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের কাপড় রফতানি হয়। ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোতে ডেনিম কাপড়ের তৈরি পোশাক রফতানির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ চীনকেও ছাড়িয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ডেনিম পোশাক রফতানির ক্ষেত্রে চীন ও মেক্সিকোর পরেই বর্তমানে বাংলাদেশের অবস্থান।

তৌফিক মিরসরাই অর্থনৈতিক জোনে বিপুল পরিমাণ বিনিয়োগের ব্যাপারে আশা প্রকাশ করে বলেন, আমরা শিল্পের জন্য জোন নির্ধারন করেছি। কৌশলগত ঢাকা চট্রগ্রাম শিল্প করিডরের পাশাপাশি দেশেরে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জোনগুলোর মধ্যে এটি একটি। দেশী ও বিদেশী বিনিয়োগকারীদের উৎসাহিত করতে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক জোন কর্তৃপক্ষ মিরসরাই, ফেনি ও সীতাকুন্ড অর্থনৈতিক জোনের পাশে বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরী (বিএসএমএসএন) নামে একটি শিল্প নগরী গড়ে তুলছে। এই জোনে বিপুল সংখ্যক তৈরি পোশাক শিল্প করখানা স্থাপিত হবে। এখানে আর্ন্তজাতিক মানের ব্যবসা ও শিল্প নগরী স্থাপনের অনুকুল পরিবেশ সৃষ্টি হবে।

বাসস

শেয়ার করুন !
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply