কুড়িগ্রামে কবরে ‘আরবি হরফের ছাপ’ আসলে ভূ-কম্পনের ফল

0

সময় এখন ডেস্ক:

সম্প্রতি কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পানিমাছকুটি গ্রামে এক ব্যাক্তির দাফনের উদ্দেশে খনন করা কবরের দেওয়ালের গায়ের মাটিতে ভেসে ওঠা ‘আরবি হরফের ছাপ’ মূলত ভূ-কম্পনের ফলে সৃষ্ট বলে মত দিয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের সূত্র ধরে সম্প্রতি ফুলবাড়ীর ওই কবরের পাশের মাটি নিয়ে পরীক্ষা করে প্রাথমিকভাবে এটি নিশ্চিত হয়েছেন বলে প্রফেসর ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন নিজেই জানিয়েছেন।

গত ৭ জানুয়ারি সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পানিমাছকুটি গ্রামের মৃত জব্বার মুন্সির ছেলে ইসরাঈল হোসেনের দাফনের জন্য তার বাড়ির পাশে কবর খনন করা হয়। কবর খননের সময় স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থী প্রথম কবরের গায়ে মাটিতে আরবি হরফের ছাপ দেখতে পেয়ে কবর খননকারী আব্দুল বারী ও আমির আলীকে জানায়।

স্থানীয় আলেমরা জানান, কবরের গায়ের এক পাশে আরবি হরফে বিছমিল্লাহ, ইয়া ও শিন হরফের ছাপ এবং অপর পাশে মিম, হা এবং মিম হরফের ছাপ দেখা গেছে। মহূর্তেই এই খবর ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উৎসুক মানুষের ঢল নামে।

পরে স্থানীয় প্রশাসন খবর পেয়ে শৃঙ্খলা রক্ষায় ওই কবরে পাশে পুলিশ মোতায়েন করে। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচার হলে সম্প্রতি ওই কবরের আশেপাশের মাটি পরীক্ষা করতে আসেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন।

গত ১২ ও ১৩ জানুয়ারি প্রফেসর ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন তার বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণির এক শিক্ষার্থীসহ কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় আলোচিত সেই কবর ও এর আশেপাশের এলাকা পরিদর্শন করে মাটির নমুনা সংগ্রহ করেন। প্রাথমিক গবেষণা শেষে তিনি নিশ্চিত হন, ওই কবরে সৃষ্ট ‘আরবি হরফের ন্যায় চিহ্ন’ মূলত সাম্প্রতিক কোনও সময়ে ঘটে যাওয়া ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট মাটির একধরনের পরিবর্তন। এ নিয়ে তিনি গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন।

জানতে চাইলে প্রফেসর ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা মনে করছি এটা ভূমিকম্পের সঙ্গে জড়িত কোনও চিহ্ন। পরে আরও গবেষণা করে জানা যাবে ঠিক কতদিন আগে সেখানে ভূমিকম্প হয়েছিল।

কুড়িগ্রাম তথা বাংলাদেশের উত্তারাঞ্চল একটি ভূ-কম্পনপ্রবণ এলাকায় অবস্থিত এবং বাংলাদেশের ভূ-কম্পন ম্যাপ অনুযায়ী, এই অঞ্চলটি সর্বাধিক ভূমিকম্পনপ্রবণ এলাকা উল্লেখ প্রফেসর সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ওই বাড়ির লোকজনসহ স্থানীয়রা আমাদের জানিয়েছেন, ২-৩ বছর আগে ওই এলাকায় ভূমিকম্প হয়েছিল। আর যে মাটিতে (কবরের জমি) চিহ্ন পাওয়া গেছে, সে মাটিগুলো ৪-৫ বছর আগে ওই বাড়ির মালিক অন্যত্র থেকে এনে ওইখানে ভরাট করেছিলেন। ফলে নরম মাটি হওয়ায় ভূমিকম্পে সেগুলোর পরিবর্তন হওয়া স্বাভাবিক।

কবরের গায়ের মাটিতে আরবি হরফের ন্যায় চিহ্ন সম্পর্কে ভূতাত্ত্বিক এই গবেষক বলেন, প্রকৃতিতে যখন প্রাকৃতিকভাবে কোনও একটা জিনিস ঘটে, তখন তার আকৃতি সব জায়গায় একই রকম হবে না। একেক জায়গায় একেক রকম হবে।

সেটা নির্ভর করবে ওই এলাকার ভূস্তরের পুরুত্ব কতো, ভূ-কম্পন স্থল থেকে ওই জায়গার দূরত্ব কতো, কতো মাত্রার কম্পন ওই এলাকায় হয়েছিল, ভূস্তরে পানির পিটে কী পরিমাণ পানি ছিল, সেখানে সিডিমেন্টের সাইজ কেমন, কতক্ষণ ধরে তার মধ্যে কম্পন তৈরি হয়েছে, কত গভীরে সেটা ঘটেছে এরকম অসংখ্য কারণ হয়েছে। একেকটা ভেরিয়েবলের চেঞ্জের কারণে আকৃতির এককটা রূপ আসে। আকৃতিগুলোকে আপনি কিসের সাথে তুলনা করবেন তা দৃষ্টিভঙ্গির ওপর নির্ভর করে।

আরবি হরফের আকৃতি ধারণা করে স্থানীয়দের দাবির বিষয়ে এই গবেষক বলেন, ওই চিহ্নগুলোর সবগুলোই আরবি হরফের মতো নয়। দৃষ্টিভঙ্গির ওপর নির্ভর করবে আপনি চিহ্নগুলোকে কীসের সঙ্গে তুলনা করে বিবেচনা করবেন। আমার যতটুকু ধারণা, আমি প্রাথমিকভাবে মনে করছি, এটা ভূমিকম্পনের ফলে সৃষ্টি হয়েছে।

নরম পলিমাটির মধ্যে যদি পানি থাকে তার একধরনের বি’চ্যুতি হয়। তার ফলে প্রাথমিকভাবে যে চিহ্ন তৈরি হয়, সেটাই এরকম (আরবি হরফ বা বিভিন্ন চিহ্ন) আকৃতির হয়। চিহ্নগুলোকে আপনি মনে মনে কিছুর সঙ্গে তুলনা করলে আপনার কাছে সেটা সেরকমই মনে হতে পারে।

চিহ্নগুলো ভূমিকম্পের সাথে সম্পর্কিত নিশ্চিত করে এই গবেষক বলেন, আমাদের সংগ্রহকৃত নমুনার মাটিগুলির বয়স কত এবং ওই আকৃতির কারণে মাটির কতটুকু পরিবর্তন হয়েছে তা নির্ণয় করতে কিছুটা সময় লাগবে। তবে আপনি যদি জিজ্ঞাসা করেন, এটা ভূ-কম্পনের সঙ্গে জড়িত কি না, তাহলে আমি বলবো এটা নিশ্চিত ভাবে ভূ-কম্পনের সঙ্গে জড়িত। বাংলাট্রিবিউন।

শেয়ার করুন !
  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply