৭১ টিভিকে সতর্ক করে দুদকের আবেদন নিষ্পত্তি

0

আইন আদালত ডেস্ক:

প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা নিয়ে পলাতক পি কে হালদারের বক্তব্য প্রচার করায় একাত্তর টেলিভিশনের বিরু’দ্ধে দুদকের আদালত অবমাননার অভিযোগ নিষ্পত্তি করে দিয়েছে হাইকোর্ট।

টেলিভিশন চ্যানেলটিকে আদালত সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, পলাতকদের বক্তব্য ও বিচারাধীন বিষয়ে প্রতিবেদন সম্প্রচারে ভবিষ্যতে যেন তারা সতর্ক থাকে।

আদেশে আদালত বলেছে, পলাতকদের বিষয়ে গণমাধ্যমসহ যে কোনো মাধ্যমে বক্তব্য প্রচারে নিষে’ধাজ্ঞার রুল নিষ্পত্তি না হওয়া কিংবা পরবর্তী আদেশ না দেয়া পর্যন্ত এই নির্দেশনা বহাল থাকবে।

রোববার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

আদালতে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। একাত্তর টিভির পক্ষে ছিলেন মোহাম্মদ আশরাফ আলী।

মামলার শুনানির শুরুতে দুদকের আইনজীবী একাত্তর টিভির বিরু’দ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারির আবেদন করেন। এরপর আইনজীবী আশরাফ আলী একাত্তর টিভির লিখিত বক্তব্য তুলে ধরেন।

লিখিত বক্তব্যে একাত্তর টিভি তাদের সম্প্রচার করা বিভিন্ন অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের খতিয়ান তুলে ধরা হয়। কোনো উদ্দেশ্যে ছাড়া তারা সরল বিশ্বাসে (গুড ফেইথ) ওই সাক্ষাতকার প্রচার করেছে বলেও জানায়। ভবিষ্যতে বিচারাধীন বিষয়ে সম্প্রচারে তারা সতর্ক থাকবেন বলেও উল্লেখ করা হয়।

পলাতক বা সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের বক্তব্য প্রচারের বিষয়ে আইনজীবী মোশাররফ হোসেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ভারতের নজির তুলে ধরেন।

শুনানিতে যুক্ত হয়ে আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির এ বিষয়ে অন্তত ৩৭টি সিদ্ধান্ত দেখানোর কথা বলেন। সিদ্ধান্তগুলো লিখিত আকারে জমা দিতে অনুমতি চান। তখন আদালত তাকে অনুমতি দেন। পরে আদালত একাত্তর টিভির বিরু’দ্ধে দুদকের করা আদালত অবমাননার অভিযোগটি নিষ্পত্তি করে দেয়।

বিদেশে টাকা পাচা’রের অভিযোগে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক পি কে হালদারকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে সুয়োমুটো রয়েছে আদালতের। রুলটি বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় গত ২৮ ডিসেম্বর রাত ১০টার সংবাদে তার সাক্ষাৎকার এবং রাত সাড়ে ১১টায় একাত্তর জার্নালে তার সরাসরি বক্তব্য প্রচার করে একাত্তর টিভি।

২৯ ডিসেম্বর বিষয়টি আদালতের নজরে এনে একাত্তর টিভির বিরু’দ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ দায়ের করেন দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। আদালত এ বিষয়ে লিখিত আবেদন দিতে বললে পরে তিনি লিখিত আবেদন করেন।

পরে আদালত সাক্ষাৎকার এবং মধ্যরাতে প্রচারিত টকশোর ভিডিও ক্লিপ তলব করে। পাশাপাশি যে কোনো পলাতক আসামির বক্তব্য গণমাধ্যমসহ সব মাধ্যমে প্রচারের ওপর নিষে’ধাজ্ঞা দেন।

আদালতের নির্দেশনা অনুসারে গত ১০ জানুয়ারি একাত্তর টিভি কর্তৃপক্ষ দুটি ভিডিও ক্লিপ হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার বরাবর জমা দেন। পরে সেটি আদালতে প্রদর্শন করা হয়।

তারই ধারাবাহিকতায় রোববার বিষয়টির শুনানি হয়। শুনানি শেষে আদালত একাত্তর টিভিকে সতর্ক করে দুদকের আবেদন নিষ্পত্তি করে দেয়। তবে পলাতক আসামিদের বক্তব্য প্রচারের বিষয়ে জারি হওয়া রুল শুনানির জন্য রেখে দেয়।

পলাতক পি কে হালদারকে বিদেশ থেকে ফেরত আনা এবং তাকে গ্রেপ্তারে কী কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে সে বিষয়ে জানতে চেয়ে গত বছরের ১৯ নভেম্বর আদেশ দেয় আদালত।

শেয়ার করুন !
  • 11
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply