‘আমাকে ঝেঁটিয়ে বিদায় করা হয়নি, স্বেচ্ছায় অবসরে যাচ্ছি’

0

সময় এখন ডেস্ক:

সদ্য বিদায়ী অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, আমাকে ঝেঁটিয়ে বিদায় করা হয়নি। আমি নিজ ইচ্ছায় অবসরে যাচ্ছি। এটি একটি বিরল সম্মান ও সৌভাগ্যও বটে। সোমবার (০৭ জানুয়ারি) অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষ থেকে দেওয়া বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, ৮৫ বছর বয়সেও বাংলাদেশের মতো একটি জটিল রাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়ের মতো একটি জটিল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেছি। গত ১০ বছরে বাংলাদেশ একটি পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে। এই ১০ বছর সুচারুভাবে সরকার পরিচালনা করেছি।

অবসরে কী করবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন থেকে অবসর সময়ে বই পড়বো ও লেখালেখি করবো। আমার কালেকশানে ৫০ হাজার বই আছে। এগুলো সব পড়া হয়নি। চিন্তা করছি অবসরে গিয়ে এগুলো কিছু কিছু পড়তে শুরু করবো। আরেকটি কাজ আমি করবো। সেটা হচ্ছে এই পড়ার ওপরে আমি লেখালেখি করবো।

এর আগে অবসর নেয়া প্রসঙ্গে সদ্য সাবেক এই অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘রাজনীতিতেও অবসরের সংস্কৃতি চালু হওয়া উচিৎ। যা আমি শুরু করতে যাচ্ছি। আমার চেয়েও বয়সে সিনিয়র জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ এবং গণফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা ড. কামাল হোসেনরা আজও রাজনীতি করছেন, এটা অভাবনীয়। তরুণদের জন্য জায়গা করে দেয়া প্রয়োজন। আমি প্রচুর কাজ করেছি, এবার অবসরটা উপভোগ করতে চাই।’

শপথ নিলেন প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রিসভার সদস্যবৃন্দ

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ৪র্থ বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন। আজ সোমবার (০৭ জানুয়ারি) বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটের সময় বঙ্গভবনের দরবার হলে প্রধানমন্ত্রীকে শপথ পড়ান রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন মন্ত্রিসভা হচ্ছে ৪৬ সদস্য বিশিষ্ট। এদের মধ্যে পূর্ণমন্ত্রী হচ্ছেন ২৪ জন, প্রতিমন্ত্রী ১৯ জন ও উপমন্ত্রী হবেন ৩ জন। রোববার (০৬ জানুয়ারি) নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের দফতরও বণ্টনসহ তালিকা প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথ গ্রহণের জন্য বঙ্গভবনে সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে।

সোমবার (০৭ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ গ্রহণ করবেন। বঙ্গভবনের দরবার হলে তাদের শপথ পড়াবেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ।

রীতি অনুযায়ী, প্রথমে প্রধানমন্ত্রী এবং পর্যায়ক্রমে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীরা শপথ নেবেন। শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

এই শপথের মধ্য দিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব নিতে যাচ্ছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ। আর চতুর্থ মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন দলটির সভাপতি শেখ হাসিনা। তবে এবার মহাজোটের শরিক দলের কোনও নেতাকে মন্ত্রিসভায় রাখা হয়নি। শুধু আওয়ামী লীগ নেতারাই থাকছেন মন্ত্রিসভায়।

গতকাল রোববার (৬ জানুয়ারি) বিকেলে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ৪৭ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভার নাম ও দপ্তর বণ্টনের কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। এবারই প্রথমবার শপথের আগে মন্ত্রীদের তালিকা ও দপ্তর বণ্টনের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। নতুন ও পুরানদের সমন্বয়ে গঠিত শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভায় এবার ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী এবং তিনজন উপমন্ত্রী থাকছেন। বিদায়ী সরকারে থাকা ৩৬ জনের নতুন মন্ত্রিসভায় জায়গা হয়নি। আর নতুন সরকারের প্রথমবারের মতো সরকারের দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন ৩১ জন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নতুন মন্ত্রিসভা শপথ নিলেই ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি গঠিত পুরনো মন্ত্রিসভা ভেঙে যাবে।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা করে আওয়ামী লীগ জোট। জোটগতভাবে আওয়ামী লীগ পেয়েছে ২৮৮ আসন। এককভাবে এ সংখ্যা ২৫৭। আর মহাজোটে থাকা জাতীয় পার্টি ২২টি আসন পেয়েছে। এবার সংসদে বিরোধী দলে থাকার ঘোষণা দিয়েছে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বাধীন দলটি।

শেয়ার করুন !
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। somoyekhon.net-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে somoyekhon.net আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।

Leave A Reply

error: Content is protected !!